ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

নির্বাচন ও ইসি

খুলনার মেয়র নৌকার খালেক

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-১৫ ০৩:৫০:০৮ পিএম
খুলনার মেয়র নৌকার খালেক নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হওয়ার পর তালুকদার আব্দুল খালেক। ছবি: মানজারুল ইসলাম/বাংলানিউজ

খুলনা: খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনের কেন্দ্রভিত্তিক ভোট গণনায় মেয়র পদে অনানুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক।

নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ৯শ’ ২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ৮ হাজার ৯শ’ ৫৬ ভোট।

তবে এখনো খুলনা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে নির্বাচন কমিশন স্থাপিত অস্থায়ী ঘোষণা কেন্দ্র থেকে কোনো ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি।

মোট ২৮৯টি কেন্দ্রের মধ্যে দুটি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর একটি কেন্দ্রে জয়ী হয়েছেন খালেক অন্যটিতে মঞ্জু।

দিনভর কয়েকটি কেন্দ্রে দখল, অনিয়ম, অভিযোগ, ব্যালট পেপারে জোরপূর্বক সিল মারার ঘটনা ঘটেছে। আবার সুষ্ঠু ভোটও হয়েছে অনেক কেন্দ্রে। খুলনা আ’লীগের মেয়র প্রার্থী বলেন, ভোট ভালো হয়েছে। অন্যদিকে বিএনপির প্রার্থী বলেন, অন্তত ৪০টি কেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে।

জাল ভোটের অভিযোগে একটি কেন্দ্রে ভোট বাতিল, দুটি কেন্দ্র এবং একটি বুথে ভোট স্থগিত করা হয়। এর বাইরে একটি কেন্দ্রের অদূরে বিএনপির নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করা হয়েছে।

২৪ নং ওয়ার্ডের সরকারি ইকবাল নগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করে দেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আনিসুর রহমান। নৌকা প্রতীকে সিল মারার ঘটনায় এছাড়া রূপসা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও রূপসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেও ভোট স্থগিত হয়।

জাল ভোট দেয়ার অভিযোগে চারটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে দুপুরে ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের লবণচোরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা মার্কায় সিল মারার অভিযোগে কেন্দ্রটিতে ভোট স্থগিত রাখা হয়েছে।

২২ নম্বর ওয়ার্ডের ফাতিমা উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি বুথে স্থগিত করা হয় ভোট। সেখানেও নৌকা মার্কায় সিল মারা হচ্ছিল ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের হাজী আব্দুল মালেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কলেজ কেন্দ্রেও জাল ভোট দেয়ার ঘটনা ঘটেছে।

কলেজিয়াট স্কুলে জাল ভোট দেওয়ার ঘটনার ছবি তুলতে গেলে সাংবাদিকদের প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। অভিযোগ উঠেছে ২৫ নং ওয়ার্ডের এতিমখানা মোড়ের নূরানি মাদ্রাসায় ভোটারদের হাতে কালি দিয়ে নিজেরাই ভোট দিয়েছে সরকার দলীয় প্রার্থীর সমর্থকরা।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুচ আলী বলেন, কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ভোট সুষ্ঠু হয়েছে।

আরও পড়ুন>>
** কেসিসি নির্বাচন: নৌকা ১৬৪৬২০, ধানের শীষ ১০১২১৪ ভোট
** ইভিএম কেন্দ্র: আ'লীগ ৭৭৭, বিএনপি ৭১০ ভোট
** আমরা সন্তুষ্ট: ইসি সচিব
** বিএনপির অভিযোগ সুনির্দিষ্ট নয়: ইসি শাহাদাত
** খুলনা সিটির ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা
** কেসিসি নির্বাচনের সর্বশেষ
** ভোটকেন্দ্র দখলের অভিযোগ ভিত্তিহীন বললেন খালেক
** খুলনার ভোটকেন্দ্র আ’লীগের দখলে নেওয়ার অভিযোগ
** খুলনায় দুই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত
** খুলনার নির্বাচন হচ্ছে নারায়ণগঞ্জের মতোই
** ভরাডুবির আশঙ্কায় মিথ্যাচার করছে বিএনপি
** অশান্তি আর নিগ্রহে ভরপুর কেসিসি নির্বাচন: রিজভী
** এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ মঞ্জুর
** খুলনায় কাউন্সিলর প্রার্থীর এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ
** ফলাফল যাই হোক, মেনে নেবেন খালেক
** খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে
** রাত পোহালে কেসিসি নির্বাচন, কে হচ্ছেন নগর পিতা

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৭ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০১৮
এমআরএম/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa