ঢাকা, সোমবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

আগরতলা

ত্রিপুরায় এবার যাত্রা শুরু আম আদমি পার্টির

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১৬ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২২
ত্রিপুরায় এবার যাত্রা শুরু আম আদমি পার্টির

আগরতলা, (ত্রিপুরা): আনুষ্ঠানিকভাবে ত্রিপুরায় আম আদমি পার্টি বুধবার (১১ মে) তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে।

এদিন দলের তরফে আগরতলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা ঘোষণা দেন দলের উত্তরপূর্বাঞ্চলের প্রভারী রাজেশ শর্মা।

 

তিনি বলেন, রাজ্যে আটটি জেলার জন্য আট জন জেলা ইনচার্জ নিয়োগ করা হয়েছে, সেসঙ্গে চার জনের একটি বিশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছে। যারা সবক’টি জেলায় সংগঠন বিস্তারের কাজ করবেন। দলের প্রথম কাজ হচ্ছে গোটা রাজ্যে সদস্যপদ গ্রহণ অভিযান চালানো হবে।

ত্রিপুরার সামগ্রিক উন্নতি, বিকাশ, হিংসা মুক্ত ও দুর্নীতি মুক্ত করা, মূল সমস্যা যেমন বিদ্যুৎ, পানি, স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নতি করা, নেশামুক্ত রাজ্য হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য আম আদমি পার্টির সঙ্গে সব মানুষদের যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানান।  

এই দল সম্পূর্ণ শক্তি নিয়ে রাজ্যে আসবে। রাজ্যের অনেক গুণী ব্যক্তি, বুদ্ধিজীবীরা আম আদমি দলের সঙ্গে যোগাযোগ করে চলছেন। রাজ্যে এখন বিরোধীদল নেই, ফলে একদলের আধিপত্য চলছে রাজ্যে বলে মানুষের অভিমত। রাজ্যের অনেক মানুষ মনে করছেন তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার সুরক্ষিত নয়। তাই তাদের মধ্যে ক্ষোভ জমে আছে তারা ক্ষমতার পরিবর্তন চাইছেন বলে দাবি করেন তিনি। দিল্লিতে যেভাবে উন্নয়ন চলছে ঠিক সেভাবে রাজ্যের মানুষ উন্নয়নের মডেল চাইছেন ত্রিপুরায়। তাই রাজ্যের প্রতিটি জেলাতেই তারা গিয়ে প্রচার চালাবেন। মানুষ যাতে তাদের দলের সঙ্গে সংযুক্ত হয় এই আহ্বান রাখেন।  

সেসঙ্গে তিনি এদিন রাজ্যে আটটি জেলার আট জন জেলা ইনচার্জের নাম গুলিও ঘোষণা করেন। এরা হলেন- উত্তর জেলার মুক্তর, ঊনকোটি জেলা থেকে সুমন্ত দেবনাথ, নীতা দেবী চাকমা, মোহনজীৎ পাল, পশ্চিম জেলা ১ থেকে শিপ্রা দাস, পশ্চিম জেলা ২ থেকে রঞ্জিৎ দত্ত, সিপাহীজলা জেলায় সুদীপ্ত সিনহা, গোমতী প্রদীপ শীল, দক্ষিণ জেলায় বিশ্বজীৎ মিত্র। পাশাপাশি চারজনের বিশেষ কমিটির সদস্যদেরও নাম ঘোষণা করেন।  

এক মাস ব্যাপী সদস্য অভিযান চালানো হবে দলের তরফে। কোন জেলা থেকে কত সংখ্যক লোক আসছে  এই বিষয়গুলো বিবেচনা করে এর পর পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন। এ মুহূর্তে কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোট করার কথা তারা চিন্তা করছেন না বলেও জানান।

বিধান সভা নির্বাচনে খুব একটা দেরি নেই। এই অবস্থায় আম আদমি পার্টি রাজ্যে সংগঠন বিস্তার করতে পারবে কী? এ প্রশ্নের উত্তরে নেতৃত্বে অভিমত সম্প্রতি গৌহাটি পৌরনিগম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

এতে ভালো ফল করেছে আম আদমি দল। এ নির্বাচনের তিন মাস আগে গৌহাটিতে কাজ শুরু করেছিল দলটি। ঠিক একইভাবে ত্রিপুরা রাজ্যে মানুষের মনে আম আদমি পার্টি রয়েছে, রাজ্যের সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে তা তারা জানতে পেরেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উত্তরপূর্ব ভারতে দলের নির্বাচনী ইনচার্জ মনীষ কৌশিকসহ অন্যান্য নেতৃত্বরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৪ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২২
এসসিএন/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa