Alexa
ঢাকা, সোমবার, ১৩ চৈত্র ১৪২৩, ২৭ মার্চ ২০১৭
bangla news
৭১ ও ১৭

৭১ ও ১৭

স্বাধীনতার ৪৬তম বর্ষ উদযাপন করছি আমরা। রক্তের দামে আমরা এ স্বাধীনতা অর্জন করেছি। বঙ্গবন্ধু বলেছেন, ‘রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরও দেবো। স্বাধীনতার জন্য বাঙালির ‘রক্ত-ইতিহাস’ একদিনের নয়। পরাধীন ভারতবর্ষে বাঙালি রক্ত দিয়েছে, রক্ত দিয়েছে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে। তারই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তান আন্দোলন ও পাকিস্তান অর্জন। কিন্তু ভাগ্য বিড়ম্বিত বাঙালি অর্জিত পাকিস্তানেও শান্তি পেলো না, স্বাধীনতার স্বাদ পেলো না। ফলে আবারও তাকে রক্তের পথেই হাঁটতে হলো। 


২০১৭-০৩-২৬ ৪:৩১:৫৭ পিএম
গণহত্যা ‘উপভোগ’ করতে ঢাকায় থেকে গেলেন ভুট্টো

গণহত্যা ‘উপভোগ’ করতে ঢাকায় থেকে গেলেন ভুট্টো

পৃথিবীর জঘন্যতম হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড জুলফিকার আলী ভুট্টো। পাকিস্তানের সবচেয়ে কপট, ধূর্ত ও রহস্যময় এক চরিত্রের নাম ভুট্টো। ঘোলা পানিতে মাছ স্বীকার করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করাই তার লক্ষ্য ছিল। যে কোনো উপায়ে গদি দখলই তার একমাত্র ধ্যান-জ্ঞান ছিল।


২০১৭-০৩-২৬ ১:৫৭:২৬ এএম
‘পূর্ব পাকিস্তানের শ্যামল মাটি লাল করে দেয়া হবে’

‘পূর্ব পাকিস্তানের শ্যামল মাটি লাল করে দেয়া হবে’

মেজর জেনারেল রাও ফরমান আলী বলেছিলেন, “পূর্ব পাকিস্তানের শ্যামল মাটি লাল করে দেয়া হবে”। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ এই সামরিক কর্মকর্তা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যার অন্যতম পরিকল্পনাকারী। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি পূর্ব পাকিস্তানের সামরিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। একাত্তরে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যায় তিনি প্রধান অভিযুক্তদের অন্যতম।


২০১৭-০৩-২৫ ৩:৫৫:৩০ পিএম
কসাই টিক্কার নির্দেশ, ‘আমি মাটি চাই, মানুষ নয়’

কসাই টিক্কার নির্দেশ, ‘আমি মাটি চাই, মানুষ নয়’

কসাই টিক্কা নামেই তিনি পরিচিত। তার স্বদেশি পাকিস্তানিরাই তাকে এ নামে ডাকতো। ১৯৭০ সালে বেলুচিস্তানের বিদ্রোহ দমনে জেনারেল টিক্কা খান নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞ চালান। সেজন্য পশ্চিম পাকিস্তানিরাই তাকে বেলুচিস্তানের কসাই নামে কুখ্যাতি দেয়।


২০১৭-০৩-২৫ ২:৩৬:৪৯ পিএম
২৫ মার্চের গণহত্যার সাক্ষ্য দেন নিয়াজী

২৫ মার্চের গণহত্যার সাক্ষ্য দেন নিয়াজী

একাত্তরে বাঙালি নিধনযজ্ঞের মাস্টারমাইন্ড ছিলেন জুলিফকার আলী ভুট্টো-জেনারেল ইয়াহিয়া, আর তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য ছিলেন টিক্কা খান-রাও ফরমান আলী। এই চারজনই ছিলেন ২৫ মার্চ গণহত্যার ধিকৃত খলনায়ক। এ সারিতে পরে যোগ দেন জেনারেল আমির আব্দুল্লাহ খান নিয়াজী।


২০১৭-০৩-২৫ ১২:৪৫:২৪ পিএম
লিখে নয়, আদায় করে নিন অধিকার

লিখে নয়, আদায় করে নিন অধিকার

আমার কলেজের এক বান্ধুবীকে দেখতাম যে তার পেন্সিল বক্সে সবসময় দুই-একটা সুঁই রাখতো। জিজ্ঞেস করলে কখনও উত্তর না দিয়ে হেসে চলে যেত। মনে মনে কৌতূহল বাড়তেই লাগল। কেন বক্সে সুঁই রাখে।


২০১৭-০৩-২৪ ৫:৩৩:২০ পিএম
বাংলাদেশ প্রশ্নে মার্কিন সরকার ও জনগণের বিপরীত অবস্থান

বাংলাদেশ প্রশ্নে মার্কিন সরকার ও জনগণের বিপরীত অবস্থান

ইয়াহিয়া খান বাঙালির ওপর সশস্ত্র যুদ্ধ চাপিয়ে দিলে বাঙালিও যার যা আছে তাই নিয়ে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। সামরিক ও আধা-সামরিক বাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা তাদের ইউনিট, অস্ত্রশস্ত্র, গোলাবারুদ, সাজ-সরঞ্জাম ও পরিবহন নিয়ে মুক্তিবাহিনীতে যোগ দেয়। এ যুদ্ধ ধীরে ধীরে শহর থেকে গ্রামে ও পুরো দেশে ছড়িয়ে পড়ে। যুদ্ধের এক পর্যায়ে আমাদের সঙ্গে যোগ দেয় ভারতীয় মিত্র-সেনারা। তারা মুক্তিযুদ্ধে আমাদের সহযোগী শক্তি হিসেবে যোগ দেয়।


২০১৭-০৩-২৪ ১:২৩:০৬ পিএম
অনলাইন জীবন

সাদাসিধে কথা

অনলাইন জীবন

১.
একটি দৃশ্য কল্পনা করা যাক। আপনি একজন বাবা কিংবা মা, আপনার ছেলে-মেয়েরা বড় হয়নি, তারা স্কুল-কলেজে পড়ে। একদিন আপনি বাসায় এসেছেন। এসে দেখলেন, আপনার ছেলে বা মেয়েটি টেবিলে পা তুলে গভীর মনোযোগে সিগারেট টানছে।


২০১৭-০৩-২৪ ১:৩২:৪০ এএম
২৫শে মার্চ, ‘গণহত্যা দিবস’: ইতিহাসের দায় মুক্তি

২৫শে মার্চ, ‘গণহত্যা দিবস’: ইতিহাসের দায় মুক্তি

মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অস্তিত্ব। এই একটি শব্দে জাতি খুঁজে পায় তার শেকড়ের সন্ধান। বাংলাদেশের ইতিহাস স্মরণ করতে গেলে হাজার বছরের স্বাধীনতার সংগ্রামের বিভিন্ন খণ্ডিত ইতিহাস আমাদের কাছে স্মরণযোগ্য। এই সব কিছু ছাপিয়ে ’৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ মূর্ত করেছে আমাদের প্রকৃত স্বাধীনতা। আর এই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস গড়ে উঠেছে আমাদের ভাষার অধিকার ও স্বাধীন স্বায়ত্বশাসনের আন্দোলন থেকে।


২০১৭-০৩-২৩ ১০:১১:৫৩ পিএম
তার পরিবার কি স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করবে?

তার পরিবার কি স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করবে?

‘শহীদ ফয়জুর রহমান আহমেদ’ নামে একজন এ বছর স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছেন। উনি কি সেই মহান ব্যক্তি, যিনি বাংলাদেশের ত্রিরত্ন হ‍ুমায়ূন আহমেদ, মুহম্মাদ জাফর ইকবাল এবং আহসান হাবীব এর পিতা? যদি তাই হয়, তাহলে বলবো-ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস! এই দেশে তারই হত্যাকারীদের দোসর শর্ষিনার পীর কুখ্যাত রাজাকার মওলানা আবু জাফর মোহাম্মদ সালেহকেও স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছিল।


২০১৭-০৩-২৩ ৪:৫৭:০৫ পিএম
‘স্বাধীন বাংলাদেশ’ আগেই বুঝে যায় যুক্তরাষ্ট্র-চীন

‘স্বাধীন বাংলাদেশ’ আগেই বুঝে যায় যুক্তরাষ্ট্র-চীন

মুক্তিযুদ্ধের এক পর্যায়ে সম্ভাব্য চীনা আক্রমণ নিয়ে কথাবার্তা শোনা যায়। কিন্তু এ রকম গুজবের কোনো ভিত্তি ছিল না। কারণ, তিব্বতে আসলে সেসময় কোনো ধরনের চীনা সমাগম লক্ষ্য করা যায়নি। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে ইস্টার্ন কমান্ডের ধারণা ছিল চীনাদের অবস্থান ও বিন্যাস তাৎক্ষণিক আক্রমণ রচনার উপযোগী নয়। কিন্তু তারপরও মিত্রবাহিনীর আশঙ্কা ছিল, চীন যুদ্ধে সরাসরি অংশ নেবে। এমনকি ভারতের সেনাপ্রধানেরও সে ধারণা ছিল। আসলে এটি ছিল একটি ‘সোভিয়েত-ধারণা’, যা জেনারেল মানেক শ’কেও প্রভাবিত করে।


২০১৭-০৩-২৩ ১২:৫৬:০০ পিএম
নিক্সন-কিসিঞ্জারের ‘ড্রেস রিহার্সেল’

নিক্সন-কিসিঞ্জারের ‘ড্রেস রিহার্সেল’

১৯৭১ সালের ডিসেম্বরের প্রথম থেকেই পাকিস্তানি হানাদারদের আত্মসমর্পণ নিয়ে আলোচনা হতে থাকে। মিত্রবাহিনী ও পাকিস্তানি বাহিনীর মাঝে এ বিষয়ে যোগাযোগ হতে থাকে। সেসময় ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের কনসাল জেনারেল ছিলেন আর্চার ব্লাড। পাকিস্তানিদের অবস্থা দেখে তিনি বলেন, “সৈন্যদের ‘দড়ির ফাঁস ক্রমেই সংকুচিত হচ্ছে’ বলে মনে হচ্ছে।”


২০১৭-০৩-২২ ১২:৪২:০৬ পিএম
মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান উচ্চশিক্ষা কেন্দ্র, দেশের তৃতীয় এবং ক্যাম্পাস আয়তনের দিক থেকে সর্ববৃহৎ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হলো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। মুক্তিযুদ্ধের মাত্র ৫ বছর আগে ১৯৬৬ সালে যাত্রা শুরু করলেও স্বাধীনতার সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ ও দেশের বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবদান পর্বততুল্য।


২০১৭-০৩-২১ ৯:২১:১৬ পিএম
ইন্দিরা গান্ধীকে সাফল্যের নিশ্চয়তা জেনারেল মানেক শ’র

ইন্দিরা গান্ধীকে সাফল্যের নিশ্চয়তা জেনারেল মানেক শ’র

মুক্তিযুদ্ধে ভারত বাংলাদেশকে কূটনৈতিক সহায়তা দিয়েছিল। এ কূটনৈতিক সহায়তা করতে গিয়ে ভারত কয়েকটি বিষয় বিবেচনা করে। তার মধ্যে অন্যতম হলো, বাংলাদেশ ইস্যুকে আন্তর্জাতিকীকরণ। কারণ, বিষয়টি বিশ্বের নজরে না আনলে বিশ্ববাসী বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারবে না। সেই সাথে ভারতের কূটনৈতিক সহায়তার বিষয়টিও একটি ন্যায্যতা পাবে না।


২০১৭-০৩-২১ ১২:৪১:১০ পিএম
নিক্সনের কাছে ইয়াহিয়ার নালিশ

নিক্সনের কাছে ইয়াহিয়ার নালিশ

বাংলাদেশ প্রসঙ্গে এ অঞ্চলে পরাশক্তিগুলো তাদের নিজ নিজ স্বার্থবলয়ের মধ্যে ঘুরপাক খেতে থাকে। ফলে একাত্তরে এখানে সংকট মোকাবেলায় কোনো কার্যকর উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি। ইয়াহিয়া খান ক্ষমতা হস্তান্তর না করে জাতীয় পরিষদের অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে এ সংকটের সূচনা করেন। যদিও পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছিল দুই যুগ ধরেই।


২০১৭-০৩-২০ ১২:৪০:৫০ পিএম