ঢাকা, বুধবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

গরমে অতিষ্ঠ মানুষকে পানি পান করাচ্ছে টিম খোরশেদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২১, ২০২৪
গরমে অতিষ্ঠ মানুষকে পানি পান করাচ্ছে টিম খোরশেদ

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে গরমে ওষ্ঠাগত জনজীবন। ৩৯ ডিগ্রি তাপমাত্রা হলেও অনুভবযোগ্য তাপমাত্রা ৪৪ ডিগ্রি বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া সংক্রান্ত বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও অ্যাপগুলো।

তীব্র এ গরমে যখন জনজীবন অতিষ্ঠ তখন শহরবাসীর মাঝে খাবারের বিশুদ্ধ সুপেয় পানি নিয়ে হাজির স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন টিম খোরশেদ। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে দিনমজুর, খেটে পাওয়া মানুষ, পথচারী ও সাধারণ মানুষকে বিনামূল্যে বিশুদ্ধ পানি খাওয়াচ্ছেন তারা।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া শহীদ মিনারসহ বিভিন্ন স্পটে দেখা গেছে তাদের পানি বিতরণ করতে। গরমে পথে চলাচলকারী মানুষ তৃষ্ণা মেটাতে আগ্রহ নিয়ে পান করছেন এ পানি।  

পথচারী রোকেয়া বেগম তার মেয়েকে নিয়ে পানি পান করে বলেন, আমরা অনেক দূর হেঁটেছি। আরও অনেকদূর হেঁটে বাড়ি ফিরব। কাজে বের হয়েছিলাম। এ গরমে গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে গেছে তবে কোথায় সেভাবে বিশুদ্ধ পানি না পাওয়ায় পান করিনি। যখন টিম খোরশেদের পানি বিতরণ দেখলাম তখন পান করলাম কারণ করোনার সময় থেকে তাদের সংগঠনের প্রতি আস্থা আছে তারা মানুষের উপকার করে।

একই কথা বলেন রিকশাচালক শোভন। তিনি জানান, রোদে রিকশা চালিয়ে গলা শুকিয়ে গিয়েছিল। এখানে পানি দিচ্ছে দেখে পান করলাম। এখন ভালো লাগছে। গরমটা বেশি পড়ে গেছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুশিউর রহমান জানান, প্রচণ্ড গরম, হিট স্ট্রোকের একটা প্রকোপ আছে তাই শহরবাসী অবশ্যই ঢিলেঢালা সাদা কাপড় পরিধান করবে, পর্যাপ্ত পানি খাবে এবং বিনা প্রয়োজনে বাইরে যাবে না।

টিম খোরশেদের টিম লিডার কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, আমরা গত কয়েকদিনের গরমে দেখলাম শহরের পথচারী, দিনমজুর, রিকশাচালকসহ সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। তাদের এ গরমে বেশি বেশি পানি পান করতে উপদেশ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। তবে পথে চলাচলরত অবস্থায় পানি পাওয়াটা অনেক সময় কষ্টকর হয়ে উঠে। আর পেলেও সেটি বিশুদ্ধ কিনা তাও নিশ্চিত হওয়া যায় না। আবার গরমে পানিবাহিত রোগও বাড়ছে। এতে করে আমরা মানুষের মাঝে বিশুদ্ধ পানি নিয়ে হাজির হয়েছি। এখানে মানুষ পানি পানও করতে পারবে আবার বোতলে ভরে নিয়েও যেতে পারবে।  

তিনি বলেন, মানুষের এখন সঙ্গে বোতল ভর্তি পানি রাখা উচিত। আর সমাজের সামর্থ্যবানদের আহ্বান জানাচ্ছি যার যার বাড়ির সামনে সম্ভব হলে বিশুদ্ধ পানি পানের ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য।  

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২১, ২০২৪
এমআরপি/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।