bangla news

অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা: গণপূর্তমন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২২ ৭:৩৩:১৩ পিএম
সভায় বক্তব্য রাখছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ছবি: বাংলানিউজ

সভায় বক্তব্য রাখছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: কোনো অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

তিনি বলেছেন, ‘মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন দফতর-সংস্থার কোনো কর্মকাণ্ডে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটানো যাবে না। নিয়মের বাইরে কোনো নথি উপস্থাপন করা যাবে না। ব্যত্যয় হলে যে কর্মকর্তার মাধ্যমে নথি এসেছে, তিনি এর জন্য দায়ী হবেন। এ ব্যাপারে অত্যন্ত সচেতন থাকতে হবে। প্রত্যেকটি নথি যত্ন নিয়ে দেখতে হবে। আইন ও নিয়মের ব্যত্যয় ঘটালে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা দেওয়া হবে।’

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এপিডি) অন্তর্ভুক্ত উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর আগস্ট মাসের অগ্রগতি সভায় সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রণালয় এবং আওতাধীন দফতর-সংস্থার কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, কোনো অজুহাতে কাজ আটকে রাখা যাবে না। নিয়ম ও বিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। গতানুগতিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। মন্ত্রণালয়ের ইমেজ পুনরুদ্ধারে যা যা করা লাগে, সবকিছু করতে হবে। সব কর্মকাণ্ডের ভেতরে স্বচ্ছতা, জবাবদিহি এবং নিয়মানুবর্তিতাকে শতভাগ অনুসরণ করতে হবে।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, সুশাসন প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত ও পদক্ষেপ সবাই প্রশংসা করছেন। নিজেদের কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে তা সংশোধন করুন। আমি নিজের কাজের ভুলত্রুটি উপলব্ধি করার চেষ্টা করি। অপনাদেরও সে বিষয়টি কঠিনভাবে ধারণ করতে হবে।

দফতর-সংস্থা প্রধানদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নিজেদের দফতরকে দক্ষতার সঙ্গে ব্যবস্থাপনা করতে হবে। সবাইকে আস্থায় আনতে হবে। দায়বদ্ধতা ও স্বচ্ছতা নিয়ে কাজ করতে হবে। কোনোভাবে নিজ প্রতিষ্ঠান, দফতর-সংস্থা ও মন্ত্রণালয়কে হেয় প্রতিপন্ন করা যাবে না।

এরপর এডিপি সভার আগে দফতর-সংস্থার বিভিন্ন ব্যবস্থাগ্রহণমূলক কার্যক্রম লিখিতভাবে মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য দফতর-সংস্থা প্রধানদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার, অতিরিক্ত সচিব ড. মো. আফজাল হোসেন ও মো. ইয়াকুব আলী পাটওয়ারীসহ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দফতর-সংস্থা প্রধান, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবং পরিকল্পনা কমিশন ও পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯ 
এমআইএইচ/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-22 19:33:13