bangla news
চসিক নির্বাচন

এক ওয়ার্ডে আ’লীগের ১০ বিদ্রোহী প্রার্থী

সরওয়ার কামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৬ ১:৩৪:৫৭ পিএম
লোগো

লোগো

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ৪ নম্বর চান্দগাঁও ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুদ্দীন খালেদ সাইফুকে ঠেকাতে প্রার্থী হয়েছেন আওয়ামী লীগের আরও ১০ নেতাকর্মী। তাদের দাবি, সাইফুদ্দীন ছাড়া অন্য যে কাউকে তারা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে মেনে নেবেন।

আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের দাবি, কাউন্সিলর সাইফুদ্দীন খালেদ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। তিনি প্রবীণ রাজনীতিবিদ নুরুল ইসলাম বিএসসির নামফলক সরিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মনে আঘাত দিয়েছেন। তাই নেতাকর্মীরা সাইফুদ্দীনকে দলীয় সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে মেনে নেবেন না।

সাইফুদ্দীনকে ঠেকাতে একজোট হয়ে মাঠে নেমেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তারা জানিয়েছেন, যদি সাইফুদ্দীন খালেদের দলীয় সমর্থন প্রত্যাহার করা না হয় তাহলে তারা সবাই তার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অংশ নেবেন।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন চান্দগাঁও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক আনিসুর রহমান, মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফারুক ইসলাম, চান্দগাঁও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দীন, মো. ইউসুফ সওদাগর, মো. আমজাদ হোসেন, নাছির উদ্দীন, এস এম হুমায়ুন কবির, যুবলীগ নেতা এসরারুল হক, জাহেদ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ।

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য নাজমুল হক নাজু বাংলানিউজকে বলেন, কাউন্সিলর সাইফুদ্দীন খালেদ এলাকায় বিতর্কিত। তাকে দল থেকে মনোনয়ন দেওয়ায় আমরা মর্মাহত হয়েছি। সাইফুদ্দীন খালেদকে এলাকাবাসী ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মেনে নিতে পারছেন না। তাই এলাকাবাসীর অনুরোধে প্রার্থী হবো। সাইফুদ্দীন খালেদের বিরুদ্ধে আরও অন্তত ১০ জন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ফরম নিয়েছেন।

চান্দগাঁও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, সাইফুদ্দীন খালেদকে দলীয় সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে মেনে নিতে পারছি না। তিনি নির্বাচনে থাকলে আমিও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আওয়ামী লীগের আরও নেতাকর্মী ফরম নিয়েছেন। সাইফুদ্দীন খালেদ ছাড়া অন্য যে কাউকে মেনে নেব আমরা।

কাউন্সিলর প্রার্থী মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফারুক ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, বিগত দিনে এই ওয়ার্ডে মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি যাকে সমর্থন দিয়েছেন তিনি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না। কাউন্সিলর সাইফুদ্দীন খালেদ নুরুল ইসলাম বিএসসির নামফলক অপসারণ করে অসম্মান করেছেন। তাই দলীয় নেতাকর্মীরা তার ওপর ক্ষুব্ধ। সাইফুদ্দীন খালেদ ছাড়া অন্য যে কাউকে আমরা প্রার্থী হিসেবে মেনে নিব।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুদ্দীন খালেদ সাইফু বাংলানিউজকে বলেন, আওয়ামী লীগ আমাকে সমর্থন দিয়েছে, আমি নির্বাচন করবো। নির্বাচনে অন্যরা প্রার্থী হতে পারে, এটি তাদের ব্যাপার। যারা প্রার্থী হয়েছে তারা বর্তমানে কেউ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী নন, আমি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ষড়যন্ত্রের অংশ বলে দাবি করেন সাইফুদ্দীন খালেদ।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের ঠেকাতে না পারলে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী পরাজিত হবেন বলে আশংকা করছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০
এসকে/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চট্টগ্রাম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-26 13:34:57