ঢাকা, রবিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

বাঙালির ঐতিহ্য-সংস্কৃতি নষ্টের ষড়যন্ত্র সহ্য করা হবে না: সামন্ত লাল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৪
বাঙালির ঐতিহ্য-সংস্কৃতি নষ্টের ষড়যন্ত্র সহ্য করা হবে না: সামন্ত লাল

ঢাকা: বাঙালি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্র আর সহ্য করা হবে না মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন।

‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ বলেও এসময় উল্লেখ করেন তিনি।

 

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ৩টায় রাজধানীর সবুজবাগ বাসাবোর রাজারবাগ এলাকায় বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দিরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আয়োজনে স্থানীয় কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ক্রেস্ট দেওয়া হয় মন্দিরের পূজা কমিটি।  

এ সময় ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, একটা সময় ছিল দেশে ধর্ম নিয়ে কেউ বাড়াবাড়ি করত না। হিন্দু মুসলমান সবাই দলবেঁধে একে অপরের ধর্মীয় উৎসবে অংশ নিত। হঠাৎ করে সেই সুন্দর সম্প্রীতির সংস্কৃতিকে একটি বিশেষ গোষ্ঠী বিভেদ আনার চেষ্টা করছে। কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি কথা বারবার বলেন, আমিও বলছি, ধর্ম যার যার উৎসব হবে সবার। আবহমানকালের আমাদের বাঙালি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্র আর সহ্য করা হবে না।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বরদেশ্বরী কালীমাতা পূজা কমিটির সভাপতি এবং সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন দাস।  

এদিন সকাল ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পূজা কমিটি কর্তৃক আয়োজিত সরস্বতী পূজা উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন।  

ঢাকা মেডিকেল কলেজে অধ্যায়নরত উপস্থিত মেডিকেল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এসময় তিনি বলেন, তোমরা দলে দলে ডাক্তার হও; এটা যতটা জরুরি তার থেকেও অনেক বেশি জরুরি ও গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে তোমাদেরকে সৎ, আদর্শিক মানুষ হওয়া এবং ভালো ডাক্তার হওয়া।  

তিনি আরও বলেন, দেশের লাখ লাখ অসহায় মানুষ তোমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে রয়েছে। একজন রোগী যখন চিকিৎসা নিতে আসে সেই রোগীই জানে তার জন্য ডাক্তার কত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। এজন্য ডাক্তারদের সংখ্যা বৃদ্ধির থেকে ভালো মানুষ ও ভালো মানের ডাক্তার হওয়ার দিকে আমি বিশেষ জোর দিয়েছি। তোমাদের প্রত্যেককে সৎ মানুষ ও ভালো ডাক্তার হতে হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী সকাল ৯ টায় প্রথমে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে যান। এরপর মন্ত্রী রাজধানীর মিন্টো রোডস্ত অফিসার্স ক্লাবের পূজা মণ্ডপ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন করেন ও উপস্থিত সবার সঙ্গে কথা বলেন।  

বেলা ১২টায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজধানীর বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে চিকিৎসাধীন ঢাকার তিন দগ্ধ রোগীকে দেখতে যান।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেনের কাছে সম্প্রতি কদমতলি দুর্ঘটনায় চিকিৎসাধীন ৩ জন দগ্ধ রোগী সম্পর্কে জানতে চান ঢাকা-৪ আসনের এমপি আওলাদ হোসেন। সেই প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে হাসপাতালে এসে ওই ৩ জন রোগীর চিকিৎসার খোঁজ নেন এবং কথা বলেন। দগ্ধ তিন রোগীর দুজন তপু এবং বনমালী বর্তমানে ঢাকা মেডিকেলের ৩য় তলার রেড ইউনিটে এবং অপর একজন বিনা রানী দাস শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের আইসিইউ’র ১৪ নং বেডে ভর্তি আছেন। তারা সবাই একই পরিবারের সদস্য।

এরপর বিকেল ৩টায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজধানীর সবুজবাগ বাসাবো রাজারবাগ এলাকার বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দিরে যান এবং সেখানে পূজা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করে বক্তব্য রাখেন।

দিন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা এবং বসন্ত পঞ্চমী উপলক্ষে দেশবাসীর জন্য বিশেষ শুভ কামনা করেন এবং সকলের প্রতি শুভেচ্ছা জানান।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৪
আরকেআর/এসএএইচ


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।