ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

আইএসইউ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে রয়েছে চাকরির সুযোগ

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১
আইএসইউ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে রয়েছে চাকরির সুযোগ আইএসইউ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব।

ঢাকা: টেক্সটাইল সেক্টরের বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে টেকনিক্যাল ও ম্যানেজারিয়াল পজিশন এবং বাইং এন্ড মার্চেন্ডাইজিং ও শিক্ষকতায় টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে চাহিদা অনুযায়ী দক্ষতা না থাকায় অনেক ক্ষেত্রে বিড়ম্বনায় শিকার হচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

সম্প্রতি কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টেক্সটাইল ইনিঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উপর বাড়তি নজর দিচ্ছে। যার মধ্যে অন্যতম ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটি। দেশের শীর্ষস্থানীয় পোশাক রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ‘স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপ’ এর দুই কর্ণধার ও আইএসইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম মোশাররফ হুসাইন ও ভাইস-চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. আতিকুর রহমান ইন্টারন্যাশনার স্ট্যান্ডার্র্ড ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা।

শিক্ষার্থীদের জন্য স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের (প্রতিষ্ঠাতাদের) ১৯টি টেক্সটাইল বিষয়ক ইন্ডাস্ট্রিতে আছে বাস্তব অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ। এছাড়াও নিজেদের ৩০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠানে থাকছে ইন্টার্ন এবং চাকরির ব্যবস্থা।

গুরুত্বপূর্ণ এ বিষয়ে গ্রেজুয়েশন শেষ করে, স্পিনিং মিল, উইভিং ফ্যাক্টরি, ডাইংপ্রিন্টিং এন্ড ফিনিশিং মিল, গার্মেন্ট ফ্যাক্টরি, কম্পোজিট মিল, ডেনিম প্রজেক্ট, ওয়াশিং প্ল্যান্ট, বায়িং হাউস, মার্চেন্ডাইজিংসহ বেসরকারি সেক্টরে কাজ করতে পারছেন শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি পলিটেকনিক ও কলেজগুলোতেও টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এ শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল আওয়াল খান বলেন, শিক্ষা জীবন শেষে চাকরির বিষয়টি পরিবারের অপরিহার্য চাওয়া। চাকরির সেক্টর বাড়াতে দরকার সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগ। স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপ উচ্চ শিক্ষার সুযোগের সঙ্গে সঙ্গে নিজস্ব প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ করে দিচ্ছে।

ডিপার্টমেন্ট অব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এর চেয়ারর্পাসন ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুল বাছেদ মিয়া বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের টেক্সটাইল সেক্টর বিশ্ব প্রতিযোগিতার সম্মুখীন এবং প্রায় ৮৬ শতাংশের বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী খাত। কর্মসংস্থান ও দারিদ্র বিমোচনে এ সেক্টরের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য।

সরেজমিনে দেখা যায়, রাজধানীর  ৬৯ মহাখালী ‘দি সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স টাওয়ার’ নামে একটি সুবিশাল ভবনে চলছে ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির কার্যক্রম। ডিজিটাল সুযোগ-সুবিধাসহ সব ধরনের আধুনিক ব্যবস্থা ও পর্যাপ্ত আসন রয়েছে।

জানা যায়, ইউনিভার্সিটির ফ্যাকাল্টি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদের অধীনে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ আছে। জানুয়ারি-জুন এবং জুলাই-ডিসেম্বর বছরে দুটি সেমিস্টারের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয় যার মধ্যে পূর্ণ অনুদান (১০০%) থেকে শুরু করে আংশিক মওকুফসহ শিক্ষার্থীদের মোট ১৪টি ক্যাটেগরিতে স্কলারশীপ, বৃত্তি এবং ওয়েভার দেওয়া হয়। আরো তথ্যের জন্য আইএসইউ'র ওয়েবসাইট www.isu.ac.bd ভিজিট করুন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১
কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa