ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

ট্যুরিজম সেক্টর নিয়ে মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়নের উদ্যোগ

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০২০
ট্যুরিজম সেক্টর নিয়ে মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়নের উদ্যোগ ট্যুরিজম বিষয়ক ভার্চ্যুয়াল প্রশিক্ষণ কর্মশালা। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: বাংলাদেশ ট্যুরিজম সেক্টরকে এগিয়ে নিতে মাস্টারপ্ল্যান (মহাপরিকল্পনা) প্রণয়নের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। এ পরিকল্পনা প্রণয়নে সারা দেশের পর্যটনস্পটের সঙ্গে শ্রীমঙ্গলকেও সংযুক্ত করা হবে।

এতে প্রতিটি দর্শনীয় স্থানে বিশুদ্ধ পানি, পরিচ্ছন্ন টয়লেট, ড্রেস চেঞ্জ রুম, ব্রেস্ট ফিডিংসহ নানান সুবিধা থাকবে। এছাড়া সারা দেশের ট্যুর অপারেটরদের ডাটাবেজ করে তাদের তালিকা তৈরি করা হবে।
 
বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড আয়োজিত শ্রীমঙ্গলের ট্যুর অপারেটরদের নিয়ে দু’দিনব্যাপী ভার্চ্যুয়াল প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী দিন মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) প্রথম সেশনে এ তথ্য জানান বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমেদ।
 
তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ট্যুরিজম বোর্ড পর্যটনখাতকে গতিশীল করার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ জীবন ও জীবিকা একসঙ্গে চলতে হবে। তাই মার্চের ২৬ তারিখ থেকে প্রায় দীর্ঘ ছয় মাস লকডাউনের পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) গাইডলাইন মেনে ডমেস্টিক ট্যুরিস্টদের জন্য স্পটগুলো জেলা প্রশাসকদের সুপারিশে আমরা খুলে দিয়েছি।  

‘এখন কক্সবাজারসহ প্রথম সারির সবগুলো স্পটগুলোতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন ওই এলাকার ব্যবসায়ীরা। তারা রমরমা ব্যবসা করছে এই সিজনে। যদিও ইন্টারন্যশনাল অ্যারাইভাল বন্ধ, এটা সারা বিশ্বেই। মানুষ দীর্ঘদিন বাসায় বন্দি থেকে তারা সুযোগ খুঁজছিল বের হওয়ার। ’
 
অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমেদ সব পর্যটকদের অনুরোধ করে বলেন, কোভিড-১৯ সিচুয়েশনে খাবারের হোটেলে গেদারিং না করে খাবার কিনে রুমে গিয়ে খেতে পারেন। আর বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করবেন।  
 
দুই দিনের ভার্চুয়াল প্রশিক্ষণে আরো অংশ নেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের পরিচালক আবু তাহের মোহাম্মদ জাবের, উপ-পরিচালক মো. সাইফুল হাসান, সহকারী পরিচালক বুরহান উদ্দিন, ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টোয়াব) পরিচালক (অর্থ) মো. মনিরুজ্জামান মাসুম।
 
এতে ট্যুর গাইড ও ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব মৌলভীবাজারের আহ্বায়ক এবং অ্যাডভেঞ্জার ট্যুরিজমের সিইও মো. খালেদ হোসেন, শ্রীমঙ্গলের স্মার্ট ট্যুরিজমের সিইও এম এ রকিব, অরিয়েন্ট ট্যুরিজমের পরিচালক সৈয়দ রিফাত জামান রিজভীসহ ১৪ জন ট্যুর অপারেটর এতে অংশ নেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০২০
বিবিবি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।