ঢাকা, বুধবার, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

‘রাস্তা রেখে বাড়ি নির্মাণের পরিকল্পনা করতে হবে’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২০
‘রাস্তা রেখে বাড়ি নির্মাণের পরিকল্পনা করতে হবে’ বক্তব্য রাখছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম

ঢাকা: আবাসিক এলাকায় রাস্তা রেখে বাড়ি নির্মাণের পরিকল্পনা ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যানে (ড্যাপ) রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ও ড্যাপের আহ্বায়ক মো. তাজুল ইসলাম।
 
রোববার (২২ নভেম্বর) সচিবালয়ে বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।


 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, আবাসিক এলাকাগুলো হোলসেল (সবগুলোই) খারাপ আছে এ কথা আমি বলতে পারবো না। আমাদের যে সমস্ত বাড়িঘর আছে অথবা বাড়িঘর হবে সেগুলোর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে রাস্তা লাগবে। রাস্তা না থাকলে বাড়ি করে বের হবেন কি করে। রাস্তা যে পরিমাণ আছে সে পরিমাণ বাড়িঘর হতে হবে।
 
উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, একতলায় একটি বাড়ি দুই তলায় আরেকটি এবং এভাবে ৩০ তলায় ৩০টি বাড়ি হলো। ৩০টি বাড়ি থেকে যখন মানুষ বের হবে তখন তার জন্য জায়গা লাগবে। এভাবে বহুতল ভবন থেকে একাধিক বাড়ি থেকে মানুষ বের হলে রাস্তা যদি না থাকে তাহলে ঘরে বসে থাকতে হবে।
 
রাস্তা রেখেই বাড়ি নির্মাণ করতে হবে- এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আমরা একটা পরিকল্পনার পর্যায়ে আছি। আমি এখন স্ট্রেট ফরোয়ার্ড বলতে পারবো না রাস্তা করতে গিয়ে সব বাড়ি ভেঙে ফেলতে হবে অথবা নতুন বিল্ডিং করতে দেবো না, এ কথা না। যতগুলো অপশন আছে সব আমরা কাজে লাগাবো। যেমন আন্ডার পাস, ওভার পাস করার কথা চিন্তা করছি।
 
তিনি বলেন, আমরা পৃথিবীতে এক নম্বর ঘণবসতিপূর্ণ দেশ। আমার কাছে থাকা তথ্য হচ্ছে সেকেন্ডে আছে চায়না। সবকিছু মিলিয়ে কারো সঙ্গে তুলনা করা সম্ভব নয়। কিভাবে অলটারনেটিভ করা যায়, ফুটপাত দিয়ে হাঁটা ও দোকানও কিভাবে একইসঙ্গে চালানো যায় সেটি নিয়েও পরিকল্পনা করতে হবে। আমরা কাউকে কষ্ট দেওয়া বা কাউকে অসম্মান করার জন্য এটি করছি না।
 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, আমরা স্পেশাল প্ল্যানিংয়ের ব্যাপারে একমত হয়েছি। আমরা একটা প্ল্যান বানাবো। এটার ডাটা ব্যাংকে স্টোরেজ করবো। তাহলে আমাদের জন্য কাজগুলো সহজ হবে।  
 
এ সময় রাজউক চেয়ারম্যান মো. সাঈদ নূর আলম, স্থপতি ইনস্টিটিউটের সভাপতি জালাল আহমেদ, ফেলো স্থপতি ইকবাল হাবিব, সহ-সভাপতি এহসান খান, সম্পাদক ড. ফরিদা নিলুফারসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২০
এমআইএইচ/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa