ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

কেশবপুরে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শ্বশুর আটক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪
কেশবপুরে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শ্বশুর আটক

যশোর: যশোরের কেশবপুরে জেবেকা খাতুন (২০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, উপজেলার সাঁগরদাড়ি ইউনিয়নের চিংড়া গ্রামের মজিদ মোড়ল (৫০) ও তার ছেলে হারুন মোড়ল (২৫)।

কেশবপুরের চিংড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ পরিদর্শক (এসআই) আকরাম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার (৩০ ডিসেম্বর) দিনগত রাত ২টার দিকে স্বমী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ করে জেবেকা খাতুন বিষপান করে। এরপর স্বামীর পরিবার বাড়িতে স্থানীয় ডাক্তার এনে চিকিৎসা দেয়। পরবর্তীতে বুধবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে জেবেকা মৃত্যুবরণ করেন।

এ ঘটনায় বুধবার বিকেলে মৃত জেবেকার মা একই গ্রামের রোকেয়া বেগম তার মেয়েকে হত্যার অভিযোগ এনে থানায় মামলা করলে স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রায় পাঁচ বছর আগে কেশবপুরের চিংড়া গ্রামের জেবেকা খাতুন ও একই গ্রামের হারুন মোডল প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে সুমাইয়া (৩) নামে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ ডিসেম্বর) রাতে হারুন মোডল জেবেকা খাতুনকে মারধর করে হত্যা করে। তবে হারুন মোড়লের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, জেবেকা খাতুন বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

কেশবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল বাংলানিউজকে জানান, এ ঘটনায় মৃত গৃহবধূর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। এতে ওই গৃহবধূর স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ। পাশাপশি বুধবার বিকেলে জেবেকা খাতুনের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০১ জানুয়ারি) লাশ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।