[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

লড়াই নয়, চীনা ড্রাগন ও ভারতীয় হাতির উচিত এক তালে নাচা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০৮ ৭:৩৬:১৮ এএম
চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল ছবি

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল ছবি

চির শত্রুতার অবসান ঘটিয়ে চীন-ভারত ক্রমশ নিজেদের নতুন মিত্রতার সেতুবন্ধ তৈরির পথ খুঁজছে। দোকলাম নিয়ে বিরোধ সত্ত্বেও শত্রতা অবসানের চেষ্টা চলছে। এরই ইঙ্গিত মিলেছে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ির এক আশাবাদী বক্তব্যে।

চীনের পার্লামেন্টারি অধিবেশনের এক ফাঁকে বৃহস্পতিবার বার্ষিক সাংবাদিক সম্মেলনে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী এযাবৎকালের সবচেয়ে আশাবাদী বক্তব্যটি দিয়েছেন।এনডিটিভি তার বক্তব্য উদ্ধৃত করে এই খবর দিয়েছে।

চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চীনা ড্রাগন ও ভারতীয় হাতির পরস্পরের সঙ্গে যুদ্ধে না জড়িয়ে বরং উচিত একসঙ্গে নাচা।  

চীন ও ভারতের সুপ্রাচীন সম্পর্ক ও সমৃদ্ধ ইতিহাস-ঐতিহ্যের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, "চীন ও ভারত যদি ঐক্যবদ্ধ হয়, যদি পরস্পরের সঙ্গে হাত মেলায় তাহলে ১+১ মিলে ২ না হয়ে যোগফল হবে ১১।’’

ওয়াং ইয়ি এশিয়ার সবচেয়ে বড় জনসংখ্যা অধ্যুষিত দুই প্রতিবেশী দেশকে পরস্পরের প্রতি পরস্পরের বদ্ধমূল ভুল মানসিকতা ঝেড়ে ফেলে নিজেদের মধ্যে বিরাজমান মতবিরোধ ও দূরত্ব কমিয়ে আনার আহবান জানান। আহবান জানান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার।  

২০১৭ সালে দোকলাম নিয়ে দু’দেশের মারমুখী অবস্থান ও অচলাবস্থাসহ বেশ কিছু ইস্যুতে চরম বৈরিতার প্রেক্ষাপটে চীন-ভারত সম্পর্ককে তিনি কোন দৃষ্টিতে দেখেন –সাংবাদিকরা এ প্রশ্ন করেন তাকে।

জবাবে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং বলেন, ‘‘কিছু জটিলতা ও তিক্ততা সত্ত্বেও চীন-ভারত সম্পর্ক ভালোর দিকেই যাচ্ছে।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘চীন তার অধিকার ও ন্যায্য স্বার্থ সংরক্ষণ করছে মাত্র। পাশাপাশি ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার ব্যাপারে সে যত্নশীল। চীনা ও ভারতীয় নেতারা আমাদের ভবিষ্যৎ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য সচেষ্ট। এ বিষয়ে তাদের সুদূরপ্রসারি ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। এজন্যই যুদ্ধবিগ্রহে না জড়িয়ে চীনা ড্রাগন ও ভারতীয় হাতির উচিত এক তালে নাচা।’’
বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৮ ঘণ্টা, মার্চ ০৮, ২০১৮

জেএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa