ঢাকা, রবিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ জুলাই ২০২২, ০২ জিলহজ ১৪৪৩

আইন ও আদালত

নাটোরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৬, ২০২২
নাটোরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন 

নাটোর: নাটোরের বড়াইগ্রামে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী মো. শাহীন মণ্ডলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শরীফ উদ্দিন এ রায় দেন। এসময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দণ্ডপ্রাপ্ত শাহীন উপজেলার তেলো পশ্চিমপাড়া গ্রামের রইস উদ্দিন মণ্ডলের ছেলে।  

নাটোর জজ কোর্টের ভারপ্রাপ্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আরিফুর রহমান রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, ২০১৫ সালে জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া কালিকাপুর এলাকার আফছার মিয়াজীর মেয়ে চাম্পা খাতুনের (২৫) সঙ্গে একই উপজেলার তেলো পশ্চিমপাড়া গ্রামের রইস উদ্দিন মণ্ডলের ছেলে শাহীন মণ্ডলের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য চাম্পাকে নির্যাতন করতে থাকে স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। বিয়ের ছয় মাস পর ২০১৬ সালের ২০ জানুয়ারি সকালে স্বামীসহ তার পরিবারের লোকজন যৌতুকের জন্য চাম্পাকে নির্যাতন করে। একপর্যায়ে চাম্পার গলা কেটে হত্যা করার পর তারা মৃত অবস্থায় ঘরের ভেতরে ফেলে রেখে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়িসহ বাড়ির অন্যরা পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে চাম্পার বাবাসহ এলাকাবাসী শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে চাম্পাকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।  

এ ব্যাপারে আফছার মিয়াজী বাদী হয়ে বড়াইগ্রাম থানায় চাম্পার স্বামী শাহীন মণ্ডল, শ্বশুর রইস মণ্ডল ও শাশুড়ি রমেসা বেগমসহ অজ্ঞাত আরও চারজনকে আসামি একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ শুধুমাত্র চাম্পার স্বামী শাহীন মণ্ডলের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে।  

মামলাটি বিচারের জন্য আদালতে পাঠানো হলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শরীফ উদ্দিন সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় শাহীনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৬, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa