ঢাকা, সোমবার, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

আইন ও আদালত

জঙ্গি ছিনতাই: ১০ জন ফের রিমান্ডে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১, ২০২২
জঙ্গি ছিনতাই: ১০ জন ফের রিমান্ডে

ঢাকা: ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের ওপর পিপার স্প্রে ছিটিয়ে পালানোর চেষ্টাকালে আটক দুজনসহ ১০ জঙ্গির দ্বিতীয় দফায় পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিন রিমান্ডের এই আদেশ দেন।

 

গত ২০ নভেম্বর তাদের ১০ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন একই আদালত। সেই রিমান্ড শেষে তাদের আদালতে হাজির করে ফের পাঁচ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) পরিদর্শক মুহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। শুনানি শেষে বিচারক তাদের ফের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।  

আসামিরা হলেন- শাহীন আলম ওরফে কামাল, শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন, বি এম মজিবুর রহমান, সুমন হোসেন পাটোয়ারী, আরাফাত রহমান, খাইরুল ইসলাম ওরফে সিফাত, মোজাম্মেল হোসেন, শেখ আব্দুল্লাহ, আ. সবুর ও রশিদুন্নবী ভুইয়া।  

গত ২০ নভেম্বর দুপুরে ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় জঙ্গিরা। ঢাকার সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে মোহাম্মদপুর থানার একটি মামলায় তাদের হাজির করা হয়েছিল। হাজিরা শেষে হাজতখানায় নেওয়ার পথে পুলিশের মুখে স্প্রে করে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে থেকে দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় ২০ জনকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। কোর্ট পরিদর্শক জুলহাস বাদী হয়ে এই মামলা করেন। এ ছাড়া অজ্ঞাতনামা সাত-আটজনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।  

রিমান্ডপ্রাপ্ত এই ১০ জনও মোহাম্মদপুর থানার ওই মামলার আসামি। আদালত প্রাঙ্গণ থেকে আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় তাদেরও আসামি করা হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১, ২০২২
কেআই/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa