ঢাকা, রবিবার, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৭ শাবান ১৪৪২

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪২ ঘণ্টা, মার্চ ৭, ২০২১
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণ

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই সেখানে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

রোববার, ৭ মার্চ ২০২১, ২২ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২ রজব ১৪৪২। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৮৩৫: ব্রিটিশ রাজ ভারতে সরকারি অফিসে ফরাসি ভাষা বিলোপ করে ইংরেজি ভাষা প্রচলন করে।
১৯২৩: তৃতীয় পেশোয়ার ষড়যন্ত্র মামলা শুরু হয়।
১৯৭১: রমনার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশে মুক্তি সংগ্রামের আহ্বান জানিয়ে ঐতিহাসিক ভাষণ দেন।

৭ মার্চের ভাষণ ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঢাকার রমনায় অবস্থিত রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) অনুষ্ঠিত জনসভায় শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া এক ঐতিহাসিক ভাষণ।

১৮ মিনিটের এ ভাষণে যুগান্তকারী ভাষণে তিনি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমানে বাংলাদেশ) বাঙালিদের স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান। বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। ’

পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করার আহ্বানের অধীর অপেক্ষায় ছিল বাঙালি জাতি। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের উদ্দীপ্ত ঘোষণায় বাঙালি জাতি পেয়ে যায় স্বাধীনতার দিকনির্দেশনা।

এ ভাষণের একটি লিখিত ভাষ্য অচিরেই বিতরণ করা হয়েছিল। ১২টি ভাষায় ভাষণটি অনুবাদ করা হয়। নিউজউইক ম্যাগাজিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘রাজনীতির কবি’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ২০১৭ সালের ৩০ শে অক্টোবর ইউনেস্কো এ ভাষণকে ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবরে ইউনেস্কো এ ভাষণকে ‘ডকুমেন্টারি হেরিটেজ’ (বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য) হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ইউনেস্কো পুরো বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ দলিল সংরক্ষণ করে থাকে।

১৯৭৩: বাংলাদেশে প্রথম সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
১৯৮৯: ইরান ও যুক্তরাজ্যের কূটনৈতিক সর্ম্পক ছিন্ন। সালমান রুশদীকে নিয়ে দু’দেশের মধ্যে জটিলতার সৃষ্টি হয়।
১৯৯৯: যশোরে উদীচীর অনুষ্ঠানে বোমা বিস্ফোরণে দুই শতাধিক ব্যক্তি হতাহত হন।

জন্ম
১৮৫৭: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অস্ট্রিয়ান চিকিৎসক জুলিয়াস ওয়াগনার-জারেগ
১৯০৪: বাঙালি লেখক ও ঔপন্যাসিক ফাল্গুনী মুখোপাধ্যায়
১৯০৭: অখিলচন্দ্র নন্দী, ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবী ও সাম্যবাদী কর্মী
১৯১৪: আমেরিকান অভিনেতা জনরদনী
১৯৩১: শঙ্কু মহারাজ, প্রখ্যাত বাঙালি ভ্রমণ সাহিত্যিক
১৯৩৮: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান জীববিজ্ঞানী ডেভিড বাল্টিমোর
১৯৪৬: ইংরেজ গায়ক, গীতিকার, কিবোর্ড প্লেয়ার ও প্রযোজক ম্যাথু ফিশার
১৯৫৪: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জার্মান রসায়নবিদ অটো ডিলস
১৯৫৫: ভারতীয় অভিনেতা অনুপম খের

মৃত্যু
১৯৩২: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ফরাসি রাজনীতিবিদ ও ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী
১৯৮২: বিমল ঘোষ, শিশু সাহিত্যিক
১৯৮৮: আমেরিকান অভিনেতা রবার্ট লিভিংস্টোন মৃত্যুবরণ করেন।
১৯৯৭: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান পদার্থবিদ এডওয়ার্ড মিল্স পারসেল
১৯৯৯: স্ট্যানলি কুব্রিক, একাডেমি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী মার্কিন চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক
২০১৭: কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্য, একজন ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী, দোহার ফোক ব্যান্ড।

বাংলাদেশ সময়: ০০৪১ ঘণ্টা, মার্চ ০৭, ২০২১
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa