ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ আগস্ট ২০১৯
bangla news

সিলেটে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নতুনদের জয়জয়কার

নাসির উদ্দিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৯ ৯:১৫:০৬ এএম
নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যানরা।

নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যানরা।

সিলেট: ৫ম উপজেলা পরিষদ দ্বিতীয় পর্বের নির্বাচনে সিলেটে ভাইস চেয়ারম্যান (সাধারণ) ৭৬ ও সংরক্ষিত ৪১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে জৈন্তাপুর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে টানা জয় পেয়েছেন বশির আহমদ। নারী ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে পুননির্বাচিত হয়েছেন গোয়াইনঘাটের আছিয়া বেগম ও বিয়ানীবাজারের রুকশানা বেগম লিমা।

ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান নাজিরা বেগম শিলা। এই চারজন ছাড়া এবার নতুনদের জয়জয়কার হয়েছে দু’টি পদে। 

সোমবার (১৮ মার্চ) রাতে ১২ উপজেরার ঘোষিত ফলাফলে রিটানিং কর্মকর্তা তাদের বেসরকারিবাবে বিজয়ী ঘোষণা করেন।  
 
সিলেট সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মিল্লাত আহমদ চৌধুরী (পালকি) ১১ হাজার ৫৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাইফুল ইসলাম নজরুল (উড়োজাহাজ) ৯ হাজার ১৬৪ ভোট পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামীমা আক্তার (ফুটবল) ৩৭ হাজার ২১৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দিলরুবা বেগম (পদ্মফুল) পেয়েছেন ২৬ হাজার ৯৫ ভোট।
 
দক্ষিণ সুরমায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাহবুবুর রহমান (মাইক) ২০ হাজার ২৬৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নন্দন চন্দ্র পাল (টিউবওয়েল) পেয়েছেন ৭ হাজার ৪৪ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আইরিন রহমান পলি (ফুটবল) ২৩ হাজার ৯১৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী লায়লা বেগম (হাঁস) পেয়েছেন ১০ হাজার ৯৬৫ ভোট।
 
বিশ্বনাথে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো. হাবিবুর রহমান (বই) ২২ হাজার ৮৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আলতাব হোসেন (তালা) পেয়েছেন ১৫ হাজার ২১৪ ভোট। নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে জুলিয়া বেগম (কলস) ৩৪ হাজার ৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নুরুন নাহার ইয়াসমিন ৮ হাজার ৭ ভোট পেয়েছেন।
 
বালাগঞ্জে ভাইস সামস উদ্দিন (চশমা) ১১ হাজার ৮৫৮ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী (টিউবওয়েল) পেয়েছেন ৯ হাজার ৩৫৭ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সেবু আক্তার মনি (ফুটবল) ১৫ হাজার ৫১৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কুলসুমা বেগম (পদ্মফুল) পেয়েছেন ১২ হাজার ৭৭৬ ভোট।
 
ফেঞ্চুগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে জাহিরুল ইসলাম মুরাদ তালা প্রতীকে ৯ হাজার ৫৫৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাহাদ মিয়া (টিউবওয়েল) পেয়েছেন ৮ হাজার ৮০৪ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সেলিনা ইয়াছমিন ফুটবল প্রতীকে ১৪ হাজার ৮৬৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহিনী বেগম কলসপ্রতীকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৩০৪ ভোট।
 
গোলাপগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে  মনসুর আহমদ (বই) ৩৫ হাজার ২৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুল আহাদ (বৈদ্যুতিক বাল্ব) পেয়েছেন ১৩ হাজার ৮৮৮ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছেন সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজিরা বেগম শীলা। 

তিনি ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ৪০ হাজার ৪৮৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মাছুমা সিদ্দিকা (পদ্মফুল) পেয়েছেন ১৫হাজার ২৮০ ভোট।
 
কানাইঘাটে মাওলানা আব্দুল্লাহ শাকির (চশমা) ৩০ হাজার ৭৭৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী এমাদুর রহমান (টিউবওয়েল) ৮ হাজার ৪৮৮ ভোট পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় খাদিজা বেগম আগেই নির্বাচিত হয়েছেন।
 
জৈন্তাপুরে বশির উদ্দিন (মাইক) ১৪ হাজার ৬৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি নেত্রী পলিনা রহমান (সেলাই মেশিন) ২৭ হাজার ২১৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
 
কোম্পানীগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা লাল মিয়া (টিউবওয়েল) ২৬ হাজার ৮৫৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আমিনুল হক তালা প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৭৫১ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আয়শা বেগম কলস প্রতীকে ৩১ হাজার ১১৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ২ বারের ভাইস চেয়ারম্যানম্যান নাছরিন জাহান ফাতেমা (ফুটবল) ১৫ হাজার ১৮৮ ভোট পেয়েছেন।
 
গোয়াইনঘাটে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েস (চশমা) ৩১ হাজার ৯২৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জয়নাল আবেদীন (টিউবওয়েল) ২৮ হাজার ১৫১ ভোট পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আছিয়া বেগম (ফুটবল) ২৫ হাজার ২৬৭ ভোট পেয়ে পুর্ননির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী খোদেজা রহিম কলি (পদ্মফুল) ২৪ হাজার ৫৬৮ ভোট পেয়েছেন।
 
জকিগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাওলানা আব্দুস সবুর (চশমা) ৩০ হাজার ১২৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সজল সিংহ (মাইক) পেয়েছেন ১২ হাজার ১৭৮ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাজেদা রওশান শ্যামলী (কলস) ২৫ হাজার ৬০৬ পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সুলতানা আক্তার (ফুটবল) ২৪ হাজার ৮৮২ ভোট পেয়েছেন।
 
বিয়ানীবাজারে ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক মোহাম্মদ জামাল হোসেন (তালা) ২৮ হাজার ৫৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী পৌর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোহাম্মদ খছরুল হক খছরু (চশমা) পেয়েছেন ২৭ হাজার ১৬০ ভোট।  

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান রোকশানা বেগম লিমা (ফুটবল) ৩৮ হাজার ১০৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাসিনা বেগম (হাঁস) পেয়েছেন ১৮ হাজার ৭৬৫ ভোট।

বাংলাদেশ সময়: ২১০০ ঘণ্টা, মার্চ ১৯, ২০১৯
এনইউ/এমএ 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

নির্বাচন ও ইসি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-03-19 09:15:06