ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

টাঙ্গাইলের ৮টি আসনে আ’লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-৩১ ৭:০৮:১০ এএম
টাঙ্গাইলের ৮টি আসনে আ’লীগ প্রার্থী বিজয়ী

টাঙ্গাইলের ৮টি আসনে আ’লীগ প্রার্থী বিজয়ী

টাঙ্গাইল: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইলের আটটি আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। এরা হলেন, টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক দুই লাখ ৮০ হাজার ৮৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (ধানের শীষ) সরকার সহিদ পেয়েছেন ১৬ হাজার ৪০৬ ভোট।

রোববার (৩০ ডিসেম্বর) ভোট গণনার পর দুই উপজেলার দুই সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাস (মধুপুর) এবং আরিফা সিদ্দিকা (ধনবাড়ী) বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
 
২০০১ সাল থেকে এ আসনের এমপি আব্দুর রাজ্জাক। ২০০৮ সালের নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো জয়ী হয়ে সরকারের খাদ্য মন্ত্রণালয়সহ একাধিক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান। ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় তৃতীয় মেয়াদে এমপি হয়ে অর্থমন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এবারের নির্বাচনে আড়াই লাখ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়ে চতুর্থবারের মতো এ আসন থেকে জয়ী হলেন। 

টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানভীর হাসান ছোট মনির নৌকা প্রতীক নিয়ে দুই লাখ ৯৬ হাজার ৪৭৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকু পেয়েছেন ১১ হাজার ১৪৯ ভোট।

ভোট গণনা শেষে ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং গোপালপুল উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা বিকাশ বিশ্বাস রাতে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আতাউর রহমান খান (নৌকা) দুই লাখ ৩৮ হাজার ৯৫১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম বিএনপির প্রার্থী (ধানের শীষ) লুৎফর রহমান খান আজাদ পেয়েছেন আট হাজার ৫৭০ ভোট। 

টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে আওয়ামী লীগের হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী (নৌকা) দুই লাখ ২৪ হাজার ১২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট-কৃষক শ্রমিক জনতালীগের প্রার্থী (ধানের শীষ) ইঞ্জিনিয়ার লিয়াকত আলী পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৩৮৮ ভোট। 

টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগের ছানোয়ার হোসেন (নৌকা) এক লাখ ৬১ হাজার ৮০০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী (ধানের শীষ) মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান পেয়েছেন ৭৮ হাজার ৩৫৮ ভোট।

টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনে আওয়ামী লীগের আহসানুল ইসলাম টিটু (নৌকা) দুই লাখ ৮৫ হাজার ৩০৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী (ধানের শীষ) অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী পেয়েছেন ৪০ হাজার ৩২৪ ভোট।

টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে আওয়ামী লীগের একাব্বর হোসেন (নৌকা) এক লাখ ৬১ হাজার ৫১৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৮৪ হাজার ১৫৪ ভোট।
ভোট গণনা শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল মালেক রাতে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনে বিপুল ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম ভিপি জোয়াহের নৌকা প্রতীক নিয়ে দুই লাখ সাত হাজার ৬৭৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তমের মেয়ে কুঁড়ি সিদ্দিকী পেয়েছেন ৭১ হাজার ১৪৪ ভোট। রাতে সখীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আমিনুর রহমান এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৭০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

নির্বাচন ও ইসি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14