ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে হবে, লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা হবে না: কৃষিমন্ত্রী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২
শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে হবে, লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা হবে না: কৃষিমন্ত্রী

টাঙ্গাইল: লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা হবে না, তাই বিএনপিকে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের আহ্বান জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে টাঙ্গাইল শহরের শহীদ স্মৃতি পৌরউদ্যানে শহর আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, জাতীয় বা সামাজিক যেকোনো সমস্যা নিয়ে সমাবেশ, মিছিল, মিটিং করা ও প্রতিবাদ জানানো যেকোনো রাজনৈতিক সংগঠন বা দলের মৌলিক অধিকার। তবে আমাদের সংবিধানে সুস্পষ্টভাবে বলা আছে, এসব সমাবেশ, মিছিল -মিটিং সুশৃঙ্খল হতে হবে, শান্তিপূর্ণ হতে হবে। কোনোক্রমেই মানুষের জীবনমালের উপর হুমকি বা ঝুঁকি সৃষ্টি করা যাবে না। কিন্তু আমরা দেখছি, বিএনপি সমাবেশ করে মানুষের জীবনমালকে হুমকিতে ফেলছে। সমাবেশ করতে এসেই পুলিশের উপর আক্রমণ করছে। তখন পুলিশ বাধ্য হয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে বিএনপিকে নিবৃত্ত করার জন্য। আমি অনুরোধ করব- আপনারা শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ, মিছিল-মিটিং করেন। লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা করতে পারবেন না।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, যেকোনো মানুষের, সে সরকারি দলের হোক বা বিরোধী দলের; নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব পুলিশের, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর। বিএনপি যদি মনে করে তারা লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা করবে, তাহলে তারা ভুল পথে আছে। লাঠি নিয়ে বা লাঠিতে পতাকা বেঁধে সমাবেশ, মিছিল-মিটিং করা সরকার মেনে নেবে না।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি মিথ্যাচার করে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করছে। তারা ২০১৩ সালে আবার ফিরে যেতে চাচ্ছে। তারা নির্বাচনে যাবে না, বরং গাড়িতে, ট্রেনে আগুন দেবে, জীবন্ত মানুষকে পুড়িয়ে মারবে, বিদ্যুতের লাইন তুলে ফেলবে। আমরা কোনোক্রমেই এটা করতে দেব না। মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য যা যা করা দরকার, সরকার তাই করবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী এখন অনেক সুশৃঙ্খল ও সক্ষম। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদেরও দায়িত্ব পুলিশকে সহযোগিতা করা।

বিকেলে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একুশে পদকপ্রাপ্ত ফজলুর রহমান খান ফারক। শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র এসএম সিরাজুল হক আলমগীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সংসদ সদস্য মির্জা আজম, মহিলা ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য এবিএম রিয়াজুল কবির কায়ছার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের) এমপি, সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন, সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনির, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য মামুনুর রশিদ প্রমুখ।

সম্মেলনে জেলা ও সদর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা লীগসহ বিভিন্ন সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকমীরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa