ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

রাজনীতি

নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক হামলার ষড়যন্ত্র

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১
নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক হামলার ষড়যন্ত্র

ঢাকা: নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক শক্তি আবার বোমা সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্র করছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবাযদুল কাদের। এই সাম্প্রদায়িক শক্তির নির্ভরযোগ্য পৃষ্ঠপোষক বিএনপি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে হোটেল সোনারগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির উদ্যোগে ‘করোনাকালীন শিল্প ও বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দযুল কাদের বলেন, ১৩ বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। গত ১২ বছর দুর্গাপূজায় কোনো সাম্প্রদায়িক হামলা হলো না, অথচ ১৩তম বছরে এসে হামলা হলো। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক হামলা করেছে। আন্দোলনে, নির্বাচনে ব্যর্থ তারা সাম্প্রদায়িক হামলা শুরু করেছে। তারা আবারও পেট্রোল বোমা সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি এই সাম্প্রদায়িক অপশক্তির নির্ভরযোগ্য পৃষ্ঠপোষক। বিএনপি এদের ছাতা দিয়ে যাচ্ছে। যারা পূজামণ্ডপে হামলা করেছে, হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা করেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে। এদের বিচার হবেই, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে, ছাড় নেই।

তিনি বলেন, একটা কথা আমি বলতে চাই, প্রতিবেশী দেশ ভারতে আমাদের থেকে মুসলমান অনেক বেশি, ২০ কোটির মতো, আমাদের থেকে অনেক বেশি মুসলমান। আমাদের এখানে হিন্দু এক কোটির মতো। এখানে যদি এক কোটি মানুষকে ঝুঁকির মুখে ফেলে দেই ওখানে ২০ কোটি মানুষ ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাবে। এ কথাটা আপনারা সবাই ভাববেন।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যবসায়ীদের রাজনীতি করা আমি দোষের মনে করি না। কিন্তু রাজনীতিকে ব্যবসার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা, এটাকে আমি ঘৃণা করি। রাজনীতিকে ব্যবসায় ব্যবহার করলে রাজনীতি থাকে না, ব্যবসাও থাকে না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এই উন্নয়নের বিরুদ্ধে দেশে বিদেশে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্য করতে হলে এই ষড়যন্ত্র এই সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখতে হবে। তা না হলে ব্যবসা করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সাম্প্রদায়িক শক্তি দেশের শত্রু, জাতির শত্রু।

উন্নয়ন ও মেগা প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি এবং করোনায় সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনা মোকাবিলায় শেখ হাসিনার পদক্ষেপ আজ সারা বিশ্বে প্রশংসিত। জীবন ও জীবিকার মধ্যে ভারসাম্য বজায় রেখে জীবনের চাকাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সচল রেখেছেন। তিনি আজ শুধু বাংলাদেশে প্রশংসিত প্রধানমন্ত্রী নন, বিশ্বের কাছে নন্দিত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। আগামী বছর জুন মাসের মধ্যে পদ্মা সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল উদ্বোধন করেবেন প্রধানমন্ত্রী। আগামী বছর মোট চারটি মেগা প্রকল্প আমরা উপহার দেবো। বাংলাদেশের মানুষ যাতে নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে সে জন্য শেখ হাসিনা জেগে থাকেন। নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকা জো বাইডেনকে বলেছে—বাংলাদেশের উন্নয়নের দিকে তাকাও।

আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এফবিসিসিআই-এর সভাপতি জসিম উদ্দিন, ডিসিসিআই-এর সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। আলোচনা সভায় সূচনা বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির সদস্য সচিব সিদ্দিকুর রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১
এসকে/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa