ঢাকা, রবিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪৩০, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২৩
নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা আগামীতে কঠোর আন্দোলনের কথা উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ঢাকা নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের সাইনবোর্ড এলাকায় পাসপোর্ট অফিস সংলগ্ন গলিতে বিএনপির এক দফা দাবিতে চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবে ফতুল্লার সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেলে সমাবেশটি শুরু হলেও সকাল থেকেই হাজার হাজার নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে পুরো সমাবেশস্থল পূর্ণ হয়ে ওঠে।  

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. মঈন খান বলেন, এ স্বৈরাচারী সরকার দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে দেশ চালাচ্ছে। তারা দাবি করে, তারা নাকি স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি। যে সরকার গণতন্ত্র হরণ করে আজ অলিখিত বাকশাল কায়েম করেছে, সেই সরকার কোনোদিন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হতে পারে না। এ সত্য আজ শুধু বাংলাদেশের ভেতরে নয়, বাংলাদেশের বাইরের মুক্তিকামী বিশ্বের প্রতিটি মানুষ এটা টের পেয়ে গেছে।

তিনি বলেন, আমরা আন্দোলন করছি ক্ষমতার জন্য নয়। আমরা আন্দোলন করছি মানুষের ভোটের অধিকার, গণতান্ত্রিক অধিকারের জন্য। আমরা একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আন্দোলন করছি। আওয়ামী লীগ ভালো কাজ করে থাকলে মানুষ তো তাদের ভোট দেবেই। আমরা ইতোমধ্যে দেখিয়ে দিয়েছি মানুষ আওয়ামী লীগকে ঘৃণা করে। আওয়ামী লীগ চলে যাক। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হোক। আওয়ামী লীগ সে নির্বাচনে বিজয়ী হলে আমিও তাদের অভিনন্দন জানাব। কিন্তু ওরা জানে ওরা কত অপকর্ম করেছে। তাই ওরা সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে ভয় পায়।

ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজির আহমেদ টিটু বলেন, আমাদের সংগ্রাম ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার। এ আন্দোলন মানুষের অধিকার পুনরুদ্ধারের। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ সরকারের পতন ঘটাব।

ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম বলেছেন, জনগণের পেটে ভাত নেই। দশ টাকা সেরে চাল খাওয়াবে বলেছিল। আজ গ্যাস বিদ্যুৎ পানি পাওয়া যায় না। আর ওরা বড় বড় কথা বলে। এ দেশকে যদি বাঁচাতে চান তাহলে আওয়ামী লীগকে আর ক্ষমতায় আসতে দেওয়া যাবে না। আমরা লগি-বৈঠা নিয়ে নামব না। তবে আজ নারায়ণগঞ্জবাসীকে বলব, আগামীতে আমরা তারিখ দেব। সাইনবোর্ডে দিয়ে মানুষ শুধু হেঁটে হেঁটে ঢাকা শহরে ঢুকবে।

বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন বলেন, বাংলাদেশ টিকে থাকবে কি না, তা নির্ভর করে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির ওপর। আমরা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ একসঙ্গে ঘেরাও করে সরকারের পতন ঘটাব।

কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া দিপু বলেন, আজ সারা বাংলাদেশের গণতন্ত্র আইসিইউতে। খালেদা জিয়ার কিছু হলে যে আগুন জ্বলবে, তা কেউ নেভাতে পারবে না।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. মঈন খান, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজির আহমেদ টিটু, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ অর্থ-বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া দিপু, আজহারুল ইসলাম মান্নান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২৩
এমআরপি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।