ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

বিএনপির ৩ নেতাকে পিটিয়ে জখম, বাসায় হামলার অভিযোগ 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৬ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২২
বিএনপির ৩ নেতাকে পিটিয়ে জখম, বাসায় হামলার অভিযোগ 

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে গত কয়েক দিনে বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের তিন নেতাকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ ওঠেছে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে।  

আহতরা হলেন- গফরগাঁও উপজেলার স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মাহবুবুল আলম ইমন (৩৫), পাগলা থানা এলাকার যুবদল নেতা শাকিল আহমেদ সজল (৪০) ও শামছুল আলম বাবলু (৩৮)।

আহতরা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার (২৫ মে) বিকেল সাড়ে ৪টায় এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাচ্চু।  

তিনি জানান, পৃথক পৃথক ভাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আমাদের নেতাকর্মীদের উপর এই হামলা চালিয়েছে।

এর মধ্যে গতকাল ২৪ মে সন্ধ্যায় গফরগাঁও পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক মাহবুবুল আলম ইমনের ওপর পৌর শহরের নিজ বাসার সামনে হামলা করে মারাত্মক জখম করে।

গত ২১ মে রাতে পাগলা থানা যুবদল নেতা শাকিল আহমেদ সজলকে পাঁচবাগ ইউনিয়নের নিজ বাড়ির সামনে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করা হয়।

এর আগে গত ১৭ মে ময়মনসিংহ থেকে ফেরার পথে পাগলা থানার গয়েশপুরে যুবদল নেতা শামছুল আলম বাবলুর ওপর হামলা করে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা।  

এদিকে গতকাল (২৪ মে) বিকেলে ময়মনসিংহ নগরীর বাগান বাড়ী এলাকায় মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আবু ওয়াহাব আকন্দ, তার ভাতিজা দক্ষিণ জেলা কৃষক দলের আহবায়ক লিটন আকন্দ এবং নগরীর ফায়ার সার্ভিস রোড সংলগ্ন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক জাকির হোসেন বাবলুর বাসায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ অভিযোগ বিষয়ে জানতে একাধিকবার যোগাযোগ করেও জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ নেতাদের বক্তব্য জানা যায়নি। তবে তাদের অনুসারীরা জানায়, ছাত্রলীগ কোন ধরনের মামলার সঙ্গে জড়িত নেই।

এ ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাচ্চু এবং দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক তানভীরুল ইসলাম টুটুল, জেলা যুবদলের সভাপতি রুকনুজ্জামান সরকার ও সাধারন সম্পাদক দিদারুল ইসলাম রাজু।

এক বিবৃতিতে তারা বলেন, অবিলম্বে হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা না হলে রাজপথের কঠোর জবাব দেয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৫০ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২৫
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa