ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

টিকায় দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় বাংলাদেশ অনুসরণীয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৪
টিকায় দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় বাংলাদেশ অনুসরণীয় ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচিতে শতভাগ সাফল্য অর্জনের জন্য গ্যাভি’কে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের ৩২তম সম্মেলনে মন্ত্রী এ কথা বলেন।



সম্মেলনে মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম দক্ষিণ এশিয়ায় গ্যাভির কর্মকৌশল সর্ম্পকিত বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান।

এতে বক্তারা বলেন, এ অঞ্চলে টিকাদান কর্মসূচিতে যে সাফল্য অর্জিত হয়েছে, তা বাকি দেশগুলোর জন্য অনুসরণীয়।

এ সময় মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বাংলাদেশে বিভিন্ন বাধা অতিক্রম করে বর্তমানে ৮২ শতাংশ শিশুকে টিকাদান কর্মসূচির আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। যা এক বিরাট সাফল্য। সেই সঙ্গে এ অঞ্চলে সর্বাধিক।

তিনি বলেন, আমাদের এ কর্মসূচির সাফল্যের কারণে সহস্রাব্দের এমডিজি-৪ অর্জন করে যে শিশু মৃত্যু হ্রাসের লক্ষ্য ছিল, সেটিও অর্জিত হয়েছে।

বাংলাদেশ ২০১০ সালে জাতিসংঘ পুরস্কার অর্জন করেছে। এছাড়াও ২০০৯ ও ২০১২ সালে ২ বার গ্যাভি পদক পেয়েছে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, শিশু ও মাতৃ স্বাস্থ্য উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের জনগণের অঙ্গীকার এ সাফল্যের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছে।

এই খাতে বাংলাদেশ এশিয়ায় চ্যাম্পিয়ন উল্লেখ করে আরো মন্ত্রী বলেন, ‌টিকাদান কর্মসূচির গুণগত ও দক্ষতার মান বাড়িয়ে সামনের দিকে যেতে হবে।

এ সময় তিনি আরো দ্রুত এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

ভবিষ্যতে বাংলাদেশসহ এ অঞ্চলে প্রয়োজনীয় কারিগরি সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য গ্যাভির প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বৈঠকে গ্যাভির কার্যক্রম সর্ম্পকে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন, গ্যাভি অ্যালায়েন্সের কান্ট্রি প্রোগ্রাম বিভাগের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক হিন্ড খতিব ওঠম্যান।

বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ সরকারের সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa