ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

তাপ ও শব্দ প্রতিরোধক মীর-এর সলিড ব্রিকস

শাহজাহান মোল্লা ও মফিজুল সাদিক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৫
তাপ ও শব্দ প্রতিরোধক মীর-এর সলিড ব্রিকস ছবি : জি এম মুজিবুর / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: মীর কংক্রিট প্রোডাক্টস লিমিটেডের পরিবেশবান্ধব বিল্ডিং তৈরির সরঞ্জাম নজর কাড়ছে দর্শণার্থীদের। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি বিল্ডিং সরঞ্জামাদি নিয়ে আবাসন মেলায় অংশ নিয়েছে কোম্পানিটি।


 
মীর সলিড ব্রিকস, ইউনি পেভারর্স, কার্ভ স্টোন, হলো ক্লেইং ব্লক, হলো ওয়াল ব্লক, রিকটেংগুলার পেভার্স, প্লাংক, ফেসিয়াল টাইলস, পার্কিং, পেভমেন্ট, রুট টাইলস- এরকম নানাবিধ সামগ্রী পাওয়া যাচ্ছে মীর-এর স্টলে।
 
মীর-এর সলিড ব্রিকস অন্য সাধারণ ইটের চেয়ে বেশি স্থায়ীত্বশীল, পরিবেশবান্ধব ও সাশ্রীয় বলে জানান মীর কংক্রিট প্রোডাক্টসের প্রধান মার্কেটিং ম্যানেজার (ব্লক) ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সেলিম।
 
সলিড ইট দিয়ে পার্টিসান ওয়াল ও আউটার ওয়াল নির্মাণ করলে স্থায়ীত্ব অন্য ইটের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি হয়। কারণ কংক্রিটের তৈরি এই ইট সাধারণ ইটের চেয়ে বেশি সরু। ফিনিশিং ভালো হওয়ায় ইট বালু সিমেন্ট ব্যবহার কমে যাবে ফলে ওয়ালের ওজন ৪৫ শতাংশ কমিয়ে দেয় বলে জানান তিনি।
 
মীর সলিড ইটের তৈরি ভবন স্থায়ীত্বের পাশাপাশি অগ্নি ও তাপ প্রতিরোধক, শব্দ প্রতিরোধক। একই সঙ্গে ভবনের লবণাক্ততা ও ড্যাম হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই নেই দাবি করেন মোহাম্মদ সেলিম।
 
মীর সলিড ইট ব্যবহারে নির্মাণ খরচ প্রায় ৩০ শতাংশ কমবে বলেও জানান তিনি।
 
রাজধানীর গাবতলী স্লুইস গেট ও নারায়ণগঞ্জে রয়েছে মীর কংক্রিট প্রোডাক্টসের দুটি কারখানা। এখানেই সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি হচ্ছে বিল্ডিং ও কন্সট্রাকশন কাজের ব্যবহারযোগ্য সরঞ্জমাদি।
 
মেলা উপলক্ষে বিভিন্ন স্টলে ছাড়ের অফার থাকলেও এখানে নেই কোনো বিশেষ অফার। তাদের দাবি ছাড় দিলে পণ্যের মান খারাপ ভেবে নেয় ক্রেতারা। তাই ছাড় নয়, আমরা শতভাগ মানসম্পন্ন সরাঞ্জমাদি দিতে প্রস্তুত। একই সঙ্গে অন্য যেকোনো কংক্রিট প্রোডাক্টসের তুলনায় বেশি স্থায়ীত্বের গ্যারান্টি দিচ্ছি।
 
সলিড ইটের ওজন কম হওয়ায় এর তৈরি ভবন ভূমিকম্প সহনশীলও বটে। দেশে তৈরি এসব নির্মাণ সামগ্রী ইনসেপ্টা গ্রুপ, সামিট অ্যালাইন্স পোর্ট লি:, হোটেল কন্টিনেন্টাল প্রাইভেট লি:, বিএসআরএম, মদিনা গ্রুপসহ সরকারি কাজেও ব্যবহার হচ্ছে। এলজিইডির অনেক রাস্তা তৈরিতে ব্যবহার করা হচ্ছে মীর-এর  ব্লক- জানান ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সেলিম।
 
বুধবার (২৩ ডিসেম্বের) সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) ফেয়ার-২০১৫ এর উদ্বোধন করেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

পাঁচ দিনব্যাপী এই মেলা চলেবে ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলায় দর্শণার্থীদের প্রবেশের সুযোগ রয়েছে।
 
এবার রিহ্যাব ফেয়ারে প্রায় দেড় শতাধিক স্টল রয়েছে, বিভিন্ন হাউজিং কোম্পানিগুলো এই মেলায় অংশ নিয়েছে। মেলায় প্রবেশের জন্য দুই ধরনের টিকিট রয়েছে। সিঙ্গেল টিকিটের মূল্য ৫০ টাকা এবং মাল্টিপল টিকিটের মূল্য ১০০ টাকা। মাল্টিপল টিকিট নিয়ে একজন পাঁচবার মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ২২০৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৫
এসএম/এমআইএস/এমজেএফ/

** রুপায়নের রেডি পণ্যে বিশেষ ছাড়
** আমিন মোহাম্মদের প্লট কিনলেই ৩৫ শতাংশ ছাড়
** ‘কালো টাকা আবাসন খাতে বিনিয়োগ হলে পাচার কমবে’
** স্বদেশ প্রপার্টিসের প্লটে ২০ শতাংশ ছাড়
** স্বয়ংক্রিয় মেশিনে পরিবেশবান্ধব ইট
** ‘বিদেশে টাকা পাচার বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে’
** ‘জমির ব্যবস্থা করলে অনেক কম দামে ফ্ল্যাট দেবো’

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।