ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

তৃণমূল কগ্রেসের সঙ্গে আন্দোলনে না বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০১৪
তৃণমূল কগ্রেসের সঙ্গে আন্দোলনে না বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

কলকাতা: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সাধ্বী নিরঞ্জণ জ্যোতির বিতর্কিত মন্তব্য ইস্যুতে মুখ খুললেন সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য তথা পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতির দিল্লী নির্বাচন নিয়ে বক্তব্য ধর্মীয় অনুভূতিকে আঘাত করেছে এবং লোকসভার সম্মানের ক্ষেত্রে তা অশোভনীয় বলে তার পদত্যাগের দাবিতে সব বিরোধী দলের সঙ্গে বিক্ষোভে সামিল হবার কথা জানিয়েছিলেন সিপিএম নেতা তথা সাংসদ মহম্মদ সেলিম।



তাৎপর্যপূর্ণভাবে তার মধ্যে ছিল তৃণমূল কংগ্রেসও। এই খবর প্রকাশ পাবার পরে দলে নিজের কড়া অবস্থান জানিয়ে দেন পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, মন্ত্রী যা বলেছেন, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। এ ব্যাপারে বিরোধীরা সঠিক দাবিই তুলেছেন। আমাদের পার্টি সংসদে এ ব্যাপারে সোচ্চার। কিন্তু তৃণমূলের সঙ্গে কোনও যৌথ কর্মসূচিতে আমরা যেতে পারি না। ধর্মনিরপেক্ষতা রক্ষায় লড়াইয়ে তৃণমূলের বিন্দুমাত্র বিশ্বাসযোগ্যতা নেই।

অন্যান্য বিরোধী দলের সঙ্গে সিপিএম-এর একসঙ্গে বিজেপি বিরোধী আন্দোলনকে কটাক্ষ করে বিজেপি। তারা বলেন সাংসদ তাপস পালের অশালীন কথা বলার পরেও কেন সিপিএম তার পদত্যাগ দাবি করছে না। বিজেপির তরফে সিপিএম-এর তৃণমূল কংগ্রেস এবং সিপিএম’র সখ্যতা নিয়েও কটাক্ষ করা হয়।

এর পরেই কড়া অবস্থান নিয়ে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য এই মন্তব্য করেন। তিন এ-ও জানান তাপস পালের শাস্তির দাবিতে সিপিএম অনড়।

সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এই কড়া রাজনৈতিক অবস্থান পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে নতুন আলোচনার জন্ম দিয়েছে। ২০১১ সালে নির্বাচনে পরাজয়ের পর প্রত্যক্ষ রাজনীতি থেকে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়েছিল এই বাম নেতার। তার একটি কারণ অবশ্যই শারীরিক। তিনি সিপিএম পলিটব্যুরো থেকেও অব্যাহতি নিতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু দলের নীতি নির্ধারক হিসেবে তার এই কড়া অবস্থান আবার তাকে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতেই নিয়ে আসেনি। তার এই বক্তব্যের মাধ্যমে মনে করা জেতেই পারে পশ্চিমবঙ্গে সিপিএম তার প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হিসেবে তৃণমূল কংগ্রেসই মনে করছে। সিপিএমের পক্ষ থেকে জানা হয়েছে তারা শুক্রবার বিক্ষোভে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে অংশগ্রহণ করছে না।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ ঘণ্টা, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa