ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

তৃণমূলকে উপড়ে ফেলতে এসেছি: অমিত শাহ

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০১৪
তৃণমূলকে উপড়ে ফেলতে এসেছি: অমিত শাহ

ঢাকা: ‘আমি অমিত শাহ, বিজেপির একজন সামান্য কর্মী। পশ্চিমবাংলা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে উপড়ে ফেলতে এসেছি।



রোববার (৩০ নভেম্বর) কলকাতার ভিক্টোরিয়া হাউজের সামনে এক জনসভায় এভাবেই শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে হুঙ্কার ছাড়েন ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ।

প্রথমে এই সভার অনুমতি পায়নি রাজ্য বিজেপি। পরে কলকাতার উচ্চ আদালত বিজেপিকে সভা করার অনুমতি দেয়।   

এদিনের সভায় সারদাকাণ্ড ও বর্ধমান বিস্ফোরণকাণ্ডের ঘটনায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের তীব্র সমালোচনা করে অমিত শাহ অভিযোগ করেন, সারদা চিট ফান্ডের টাকা বর্ধমান বিস্ফোরণকাণ্ডে ব্যবহার করা হয়েছে।

অমিত প্রশ্ন তুলেন, ‘সারদার টাকা কালো না সাদা? সারদার টাকা বর্ধমানকাণ্ডে ব্যবহার করা হয়েছে। ’ মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘মমতাজি আমাকে বলুন, কে আপনার ছবি কিনেছে? আপনি বলুন, তৃণমূলের নেতারা সারদা চিট ফান্ডের সুবিধাভোগী কি-না। ’

বর্ধমান বিস্ফোরণকাণ্ডের ঘটনায় বাংলাদেশি জঙ্গিদের যুক্ত থাকার অভিযোগ এসেছে গোয়েন্দা সংস্থা এনআইএ’র তদন্ত প্রতিবেদনে।  

বিজেপি সভাপতি এ প্রসঙ্গ টেনে বলেন, বর্ধমান বিস্ফোরণকাণ্ডের ঘটনায় অভিযুক্তদের রক্ষার চেষ্টা করছেন মমতা।

এনআইএ-কে যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থার নামে তদন্ত কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে উদ্দেশ করে অমিত শাহ বলেন, বাংলাদেশি ‘অনুপ্রবেশকারীরা’ আপনাকে মুখ্যমন্ত্রী বানায়নি। আমি আপনাকে আর্জি জানাব, ভোট-ব্যাংকের রাজনীতি আপনি করতেই পারেন, কিন্তু দেশের নিরাপত্তার স্বার্থে বাংলাদেশি ‘অনুপ্রবেশকারীদের’ রক্ষার চেষ্টা বন্ধ করুন।

বিজেপি সভাপতি ২০১৬ সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের পতন ঘটিয়ে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য দলের নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ সময়: ২০২২ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa