ঢাকা, বুধবার, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০ মহররম ১৪৪৬

ক্রিকেট

হারলেও পাকিস্তানের ঘাম ঝরিয়ে ছাড়ল আয়ারল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১০১ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২৪
হারলেও পাকিস্তানের ঘাম ঝরিয়ে ছাড়ল আয়ারল্যান্ড

২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়ার আগে সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতলো পাকিস্তান। অল্প রানের লক্ষ্য পেয়েও ব্যাটিংয়ে নড়বড়ে অবস্থা হয়েছিল তাদের।

আর হারলেও অল্প পুঁজি নিয়ে বাবরদের ঘাম ঝড়িয়ে ছেড়েছে আয়ারল্যান্ড।

ফ্লোরিডায় আজ গ্রুপ বি-এর শেষ ম্যাচে মাত্র ১০৭ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল আইরিশরা। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে এক পর্যায়ে হারতেই বসেছিল পাকিস্তান। তবে হাল ধরেন বাবর আজম। কিন্তু এই ম্যাচেও ওয়ানডের গতিতে রান করেছেন তিনি। দলের মূল ব্যাটার অপরাজিত থাকলেও দুই ছক্কায় ম্যাচটা বের করে নেন শাহিন আফ্রিদি। শেষ পর্যন্ত ৭  বল ও ৩ উইকেট হাতে রেখে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে পাকিস্তান।

এ আসরের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতের কাছে হেরে আগেই ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল পাকিস্তান। পরে ওই দুই দলই তাদের চেয়ে বেশি পয়েন্ট পেয়ে সুপার এইটে চলে যায়। ফেভারিট হিসেবে খেলতে আসা পাকিস্তান পরে কানাডাকে হারালেও শেষ ম্যাচটি তাদের জন্য হয়ে দাঁড়ায় নিয়মরক্ষার। কিন্তু সেখানেও গোলমাল পাকালেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে শুরু থেকেই ধীরে চলো নীতিতে এগিয়েছেন দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও সাইম আউয়ুব। বলে বলে রান তুলেছেন তারা। ১৭ বলে ১৭ রান করেন আইয়ুব। রিজওয়ানের ব্যাট থেকে আসে ১৬ বলে ১৭ রান। পাওয়ালের প্লের মধ্যেই দুজনে বিদায় নেন। তিনে নামা বাবর আজম আজও রান তোলার চেয়ে টিকে থাকার দিকেই মনোযোগ দিলেন। আয়ারল্যান্ডও এই সুযোগে চেপে ধরে পাকিস্তানকে।

নবম ওভারে আরও এক উইকেট হারায় পাকিস্তান। মাত্র ৫ রান করে ফেরেন ফখর জামান। দলের রান তখনও এগোচ্ছে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে। এরপর দশম ওভারে গিয়ে জোড়া ধাক্কা খায় পাকিস্তান। এক ওভারেই উসমান খান ও শাদাব খানকে বিদায় করেন আইরিশ বোলার ব্যারি ম্যাকার্থি। পরের ওভারে ফেরেন ইমাদ ওয়াসিমও। ৬২ রান তুলতেই নেই ৬ উইকেট।  

এরপর আব্বাস আফ্রিদিকে নিয়ে সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করেন বাবর। দুজনেই টিকে থাকাকেই চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেন। দলকে ১০০ রানের আগে রেখেই বিদায় নেন আব্বাস। ২১ বলে তিনি করেন ১৭ রান। অন্যপ্রান্তে বাবর থাকা সত্ত্বেও ১৮তম ওভার পর্যন্ত ম্যাচ আয়ারল্যান্ডের দিকেই হেলে ছিল। তবে চিত্রটা পাল্টে দেন শাহিন। দুই ছক্কায় ম্যাচ শেষ করে দেন তিনি।  

ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকানোর পরের বলেই আউট হতে পারতেন শাহিন। স্লিপে থাকা পল স্টার্লিং ক্যাচ মিস না করলে গল্পটা অন্যরমও হতে পারতো। কিন্তু ভাগ্যের সেই ছোঁয়া কাজে লাগিয়ে পঞ্চম বলে ছক্কায় ম্যাচ শেষ করে দেন শাহিন। বল হাতে ৪ ওভারে ২২ রান খরচে ৩ উইকেট নেওয়া এই বাঁহাতি পেসার পরে ব্যাট হাতে করেন ৫ বলে অপরাজিত ১৩ রান। যে পারফরম্যান্সে ম্যাচসেরাও হয়েছেন তিনি।  

আর ৩৪ বলে ৩২ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন বাবর আজম। এই রান করার পথে তিনি ভাঙেন মহেন্দ্র সিং ধোনির একটি রেকর্ড। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে রানের মালিক এখন বাবর।  ১৭ ইনিংসে বাবরের সংগ্রহ ৫৪৯ রান। আর ২৯ ইনিংসে ভারতের সাবেক অধিনায়ক ধোনির সংগ্রহ ৫২৯ রান।  

এর আগে শাহিন-আমিরদের তোপে ৭ উইকেটে ১০৬ রানের বেশি করতে পারেনি আয়ারল্যান্ড। প্রথম ওভারেই তাদের দুই উইকেট শিকার করেন শাহিন। দ্বিতীয় ওভারে মোহাম্মদ আমির বিদায় করেন আইরিশ অধিনায়ক পল স্টার্লিংকে। ৪ রানে ৩ উইকেট হারানো আয়ারল্যান্ড পাওয়ার প্লের মধ্যে হারায় আরও ২ উইকেট। সেই ধাক্কা আর সামলাতে পারেনি তারা। তবে মাঝে ডিলানি ১৯ বলে ৩১ রান ও শেষদিকে জশুয়া লিটল ১৮ বলে অপরাজিত ২২ রান করে দলকে ১০০ পার করেন।  

বল হাতে শাহিনের পাশাপাশি সাফল্য পেয়েছেন আমির ও ইমাদ ওয়াসিম। এর মধ্যে ৪ ওভারে মাত্র ১১ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন আমির। আর ইমাদ ৪ ওভারে মাত্র ৮ রান খরচে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

বাংলাদেশ সময়: ০০৫৭ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।