ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

ক্রিকেট

মুম্বাইয়ের বিপক্ষে লড়াই করে হারল পাঞ্জাব

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
মুম্বাইয়ের বিপক্ষে লড়াই করে হারল পাঞ্জাব সংগৃহীত ছবি

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুই পেসার জসপ্রিত বুমরাহ ও জেরাল্ড কোয়েৎজের বিধ্বংসী বোলিংয়ের সামনে পাঞ্জাব কিংসের প্রথম ৪ ব্যাটার দাঁড়াতেই পারলেন না। এরপর অবশ্য দুই নতুন মুখ শশাঙ্ক সিং ও আশুতোষ শর্মার ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল পাঞ্জাব।

 

কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের সব চেষ্টা বিফল করে দিলেন বুমরাহ ও কোয়েৎজে। তাদের দাপুটে বোলিংয়েই শেষ পর্যন্ত ৯ রানে জয় ছিনিয়ে নিল মুম্বাই। আগে ব্যট করে ৭ উইকেটে ১৯২ রান সংগ্রহ করেন রোহিত শর্মারা। জবাবে ১৮৩ রান তুলতেই সব উইকেট হারিয়ে ফেলে পাঞ্জাব।

৭ ম্যাচে ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে মুম্বাইয়ের অবস্থান সাতে। সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুই ধাপ পেছনেই পাঞ্জাব।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে মুম্বাইয়ের দুই পেসার বুমরাহ ও কোয়েৎজের বিধ্বংসী বোলিংয়ের সামনে পাঞ্জাবের শুরুটা হয় ভয়াবহ। দলীয় ১৪ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। এখানেই শেষ নয়।  

দলীয় ৪৯ রানে পঞ্চম ও ৭৭ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় পাঞ্জাব। তবে এরপর মুম্বাইকে অবাক করে দিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন এবারের আইপিএলের দুই চমক শশাঙ্ক সিং ও আশুতোষ শর্মা। দুজনে মাত্র ২২ বলে ৪৩ রানের জুটি গড়ে।

দলকে ১১১ রানে রেখে সপ্তম উইকেট হিসেবে ফিরে যান শশাঙ্ক। তবে অন্যপ্রান্ত ধরে রাখেন আশুতোষ। হারপ্রিত ব্রারকে নিয়ে ফের লড়াই শুরু করেন তিনি। মাত্র ২২ বলে দুর্দান্ত এক ফিফটি তুলে নেন আশুতোষ, যা আইপিএলে ৮ নম্বরে নেমে ষষ্ঠ ফিফটির উদাহরণ।  

১৬তম ওভারে ব্রার ও আশুতোষ মিলে তুলে ফেলেন ২৪ রান। তাতে লক্ষ্যের কাছাকাছি চলে আসে পাঞ্জাব। শেষ ১৮ বলে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৫ রানের। কিন্তু ম্যাচের মোড় ঘুরে যায় এরপরই। কোনো উইকেট না পেলেও ১৭তম ওভারে মাত্র ৩ রান খরচ করেন বুমরাহ। আর পরের ওভারের প্রথম বলেই আশুতোষকে ফেরান কোয়েৎজে।  

২৮ বলে ৬১ রান করা আশুতোষ বিদায় নেওয়ার পর কার্যত ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় পাঞ্জাব। শেষ ১২ বলে ২৩ রান দরকার ছিল পাঞ্জাবের। ১৯তম ওভারে বল হাতে নেন মুম্বাইয়ের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া। ওভারের চতুর্থ বলে ব্রারও (২১) বিদায় নেন। শেষ ব্যাটার কাগিসো রাবাদা নেমেই ছক্কা হাঁকালেও তা শুধু ব্যবধান কমিয়েছে।

বল হাতে মুম্বাইয়ের কোয়েৎজে ও বুমরাহ ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে সূর্যকুমার যাদবের ৫৩ বলে ৭৮ রানের ইনিংসে ভর করে দুইশ ছুঁইছুঁই সংগ্রহ পায় মুম্বাই। সূর্যকুমারের ইনিংসটি ৭টি চার ও ৩টি ছক্কায় সাজানো। এছাড়া ওপেনার রোহিত শর্মা ২৫ বলে ৩৬ রান ও তিলক ভার্মা ১৮ বলে অপরাজিত ৩৪ রান করেন।  

বল হাতে পাঞ্জাবের হার্শাল প্যাটেল ৩টি ও স্যাম কারান ২টি উইকেট নেন। ১টি উইকেট গেছে কাগিসো রাবাদার ঝুলিতে।

বাংলাদেশ সময়: ০০২০ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৪, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।