ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

স্মার্ট ট্রলারের যাত্রা শুরু, থাকছে নিরাপত্তা সামগ্রী

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২০
স্মার্ট ট্রলারের যাত্রা শুরু, থাকছে নিরাপত্তা সামগ্রী স্মার্ট বোট

বরগুনা: বরগুনায় জলবায়ু পরিবর্তনকে ভাবনায় রেখে দেশের প্রথম স্মার্ট বোট (সমুদ্রগামী মাছ আহরণের ট্রলার) উদ্বোধন করা হয়েছে।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের বাইনচটকি ফেরিঘাটে এ কার্যকক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক  মোস্তাইন বিল্লাহ।

এ কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সাইক্লোন সৃষ্ট ঝুঁকি মোকাবিলার লক্ষ্যে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রগামী ট্রলারকে প্রাথমিক নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি দেওয়ার মাধ্যমে দেশের প্রথম লাল সবুজের মিশেলে স্মার্ট বোট স্কিমের যাত্রা শুরু হলো।

মৎসজীবী জনগোষ্ঠীর বিশেষ দাবিগুলোকে বিবেচনায় রেখে স্থানীয় সরকার বিভাগের লজিক প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিকভাবে বরগুনা জেলার তিনটি উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রায় ১০০টি স্মার্ট বোট স্কিম নেওয়া হয়।

এদিন স্বাস্থ্যবিধি ও কোভিড-১৯ প্রটোকল মেনে মৎস্যজীবীদের একটি স্মার্ট বোট দেওয়া হয়। বাকি স্মার্ট বোটগুলো এ মডেলকে অনুসরণ করে বানানো হবে।

মৎস্যজীবীদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা অনুযায়ী স্মার্ট বোটে মোট ১০ ধরনের পর্যাপ্ত সংখ্যক নিত্যপ্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। যেমন-লাইফ জ্যাকেট, বয়া, পানি নিরোধক ডুয়েল ব্যান্ড রেডিও (AM/FM), হেভি ডিউটির টর্চ লাইট (রাতে উদ্ধারের জন্য), ছোট আয়না (দিনে উদ্ধারের জন্য), হেভি ডিউটির স্ট্রব লাইট (পজিশন সিগন্যালের জন্য), ফার্স্ট এইড কিট, সমুদ্রের লবণাক্ত পানিকে ব্যবহার উপযোগী করার জন্য পোর্টেবল মিনি ওয়াটার ফিল্টার, কম্পাস এবং সোলার প্যানেল।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত জেলা প্রশাসক বলেন, মৎস্যজীবীদের মাছ ধরার ট্রলারকে জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে অভিযোজিত করার লক্ষ্যে কিছু প্রাথমিক নিরাপত্তা সরঞ্জামাদির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর ফলে মৎস্যজীবীরা সমুদ্রে দুর্যোকালীন জরুরি মুহূর্তে, দুর্যোগের পূর্ববর্তী বা পরবর্তী কয়েকদিন সমুদ্রে জীবন ও জীবিকার জন্য টিকে থাকতে পারবেন। পাশাপাশি মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে হারিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পাবে এবং তারা দুর্যোগের আগেই নিরাপদে ফিরে আসতে পারবেন।  

বরগুনার মতো উপকূলীয় ১৯টি জেলার মৎস্যজীবীদের কাছে লাল সবুজের মিশেলে তৈরি এসব স্মার্ট বোট দেওয়ার মাধ্যমে সুনীল অর্থনীতির সর্বোচ্চ সুযোগ নেওয়া সম্ভব বলেও উল্লেখ করেন তিনি।  

স্মার্ট বোট স্কিম, জেলা প্রশাসন এবং লজিক প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান জেলা প্রশাসক।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাবরিনা সুলতানা বলেন, স্মার্ট বোটের প্রাথমিক জীবনরক্ষা সরঞ্জামগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে নদী বা সাগরে প্রাকৃতিক দুর্যোগে সমুদ্রগামী জেলেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। সেই সঙ্গে বাড়বে মৎস্য আহরণ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২০
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa