ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

অলি আহমদকে নিয়ে রাজনীতিতে নতুন আলোচনা

মহসিন হোসেন, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
অলি আহমদকে নিয়ে রাজনীতিতে নতুন আলোচনা অলি আহমদ

ঢাকা: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এখনো আড়াই বছর বাকি। এরই মধ্যে নতুন করে নির্বাচন নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে সরকার ও বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

বিশেষকরে বিরোধী দলগুলোর মধ্যে বেশ তোড়জোড় চলছে। নতুন করে বিরোধী জোট গঠনেরও নানা গুজব শোনা যাচ্ছে। এই জোটের নেতৃত্বে কে থাকবেন সে আলোচনা চলছে। বিরোধী জোটের সবচেয়ে সিনিয়র নেতা জিয়াউর রহমানের সহযোগী, বিএনপি আমলের মন্ত্রী, এলডিপির সভাপতি কর্নেল(অব.) অলি আহমদকে নিয়ে চলছে নানা গুঞ্জন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মঙ্গলবার(১৩জুলাই) রাতে বাংলানিউজের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করেন কর্নেল অলি আহমদ। তিনি বলেন, অনেকেই আলাপ আলোচনা করছেন, আমিও শুনছি। কেউ কেউ আমার সঙ্গে আলোচনাও করেছেন। আমি তাদের বক্তব্যের জবাবে এখনও কিছু বলিনি।

সুত্র জানায়, ২০দলীয় জোটের কয়েকটি দল নিয়ে এরআগে একবার জাতীয় মুক্তি মঞ্চ নামে একটি প্লাটফরম গঠন করেছিলেন কর্নেল অলি আহমদ। সেই জোট অবশ্য তেমন সামনে এগুতে পারেনি। এখন নতুন করে জোট গঠনের প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন ২০দলীয় জোট ও বিএনপি থেকে পদত্যাগী কয়েকজন নেতা। এই জোটে জামায়াতে ইসলামী, কল্যাণ পার্টিসহ কয়েকটি দলের থাকার কথা শোনা যাচ্ছে। এছাড়া বিএনপিতে আছেন এমন কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও এই জোটে যুক্ত হতে পারেন। থাকবেন কয়েকজন সাবেক আমলাও। গণফোরাম থেকে পদত্যাগ করা সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়াও এই প্রক্রিয়ায় যুক্ত হবেন বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, নির্বাচনের আড়াই বছর বাকি থাকলেও ২০দলীয় জোটের প্রধান শরীক বিএনপি এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে তারা নির্বাচনে অংশ নেবে কিনা অংশ নিলে জোটগতভাবে নেবে, নাকি এককভাবে নেবে তাও ঠিক হয়নি। জোট হলে নেতৃত্বে কে থাকবেন তারেক রহমান বিদেশে থেকে কীভাবে নেতৃত্ব দেবেন এসব প্রশ্ন সামনে আসছে। আর এই প্রশ্নগুলোর জবাব না পাওয়ার কারণেই কয়েকজন নেতা মনে করছেন এসব বিষয় এখনই ফয়সালা করে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া প্রয়োজন। এ কারণে আসছে ঈদুল আজহার পরপরই নতুন এই জোট গঠনের বিষয়ে কাজ শুরু হবে।

কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদ বাংলানিউজকে বলেন, এসব নিয়ে এখনই কিছুই বলতে চাচ্ছি না। তবে শুধু এতটুকু বলছি যে, অনেকে আমাকে বলছেন-আপনি ছাড়া এখন দেশের কোনো উপায় নেই। আপনি প্রথম সারির বীর মুক্তিযোদ্ধা ও একজন সফল মন্ত্রী ছিলেন। আপনার ৫০ বছরের দীর্ঘ রাজনীতির অভিজ্ঞতা ও সততা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। সবার কাছে আপনার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। সুতরাং আপনাকে দায়িত্বটা নিতে হবে।  

 এক সময় অলি আহমদের বিশ্বস্ত সহযোগী, এলডিপি গঠনের কারিগর পরে অলি আহমদের দল থেকে বের হয়ে নতুন এলডিপি গঠন করে ওই দলের মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করছেন শাহাদাত হোসেন সেলিম। সেলিম বাংলানিউজকে বলেন, অলি আহমদকে দিয়ে কিছু হবে না। রাজনীতিতে এখন তার কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই। নিজের দলেই লোক নেই। উনি একজন অন্তঃসারশূন এবং আত্মকেন্দ্রিক রাজনীতিবিদ, জোটের নেতৃত্ব দেবেন কীভাবে এদেশে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন বলেন আর নির্বাচন বলেন তা হতে হবে বিএনপির নেতৃত্বেই। এ ক্ষেত্রে তারেক রহমানের বিকল্প কেউ নেই।

 
বাংলাদেশ সময়: ১২৩১ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১ 
এমএইচ/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa