ঢাকা, সোমবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

হাতীবান্ধায় দু'পক্ষের হাতাহাতিতে বিএনপির বর্ধিতসভা পণ্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৮ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২১
হাতীবান্ধায় দু'পক্ষের হাতাহাতিতে বিএনপির বর্ধিতসভা পণ্ড

লালমনিরহাট: দু'পক্ষের হাতাহাতিতে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা বিএনপির বর্ধিতসভা পণ্ড হয়েছে।  

রোববার (২১ মার্চ) দুপুরে উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বিএনপির পুরনো অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রোববার উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বিএনপির পুরনো অফিসে উপজেলা বিএনপির বর্ধিতসভা হওয়ার কথা ছিল। এ সভায় যোগ দিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু লালমনিরহাট থেকে মাইক্রোবাসে হাতীবান্ধা আসেন দুপুরে। এ সময় বিএনপির পুরনো অফিসের সামনে সাবেক এমপি জয়নুল আবেদীন সরকারের ছেলে সায়েদুজ্জামান কোয়েলসহ তার সমর্থিত নেতাকর্মীরা দুলুর মাইক্রোবাস থামিয়ে নানা অভিযোগ করেন। এ সময় উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোশারফ হোসেন ও সদস্য সচিব আফজাল হোসেন মিয়া সমর্থিত নেতাকর্মীর সঙ্গে কোয়েল সমর্থিত নেতাকর্মীদের হাতিহাতির ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে সিনিয়র নেতাদের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পরে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোশারফ হোসেনের বাড়িতে বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়।  

এ দিকে বিএনপির দাবি, বর্ধিতসভা শেষে বিএনপির নেতাকর্মীরা চলে গেলে পাশে আওয়ামী লীগ অফিস থেকে বের হয়ে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী বর্ধিতসভা স্থলের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেন। এসময় সাউন্ড সিস্টেমের এক শ্রমিককেও মারধর করা হয়েছে। এর আগে বিএনপি বর্ধিতসভার আয়োজন করলে একই দিনে পাল্টা কর্মসূচির ঘোষণা দেয় উপজেলা ছাত্রলীগ।  

এ ঘটনায় বিএনপি নেতারা বলেন, রাতে ছাত্রলীগের কয়েকজন বর্ধিতসভার ব্যানার খুলে নিয়ে গেছেন। বর্ধিতসভা শেষে আমরা চলে গেলে, সভার চেয়ার ও টেবিল ভাঙচুর করে ছাত্রলীগ।  

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদক পারভেজ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক রুবেল ছাত্রলীগ নিয়ে কটূক্তি করায় তাকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ধাওয়া করেন। এসময় ছাত্রদল নেতা রুবেল বিএনপি নেতা মোশারফ হোসেনের বাড়ির দিকে পালিয়ে যান। ছাত্রলীগের কোনো কর্মী চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেননি।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, ছাত্রদলের এক নেতা ছাত্রলীগ নিয়ে খারাপ মন্তব্য করলে উত্তেজনা দেখা দেয়। এ সময় দুই একটি চেয়ার ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। তবে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৫ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২১
এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa