ঢাকা, শনিবার, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৪ রমজান ১৪৪২

রাজনীতি

১০ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণা করতে হবে: আ স ম রব

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১
১০ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণা করতে হবে: আ স ম রব কথা বলেছেন আ স ম আবদুর রব। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের পরিকল্পনা ও কর্মসূচি ঘোষণা করে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, ১০ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণা করতে হবে।  
বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উত্তরায় আ স ম রবের বাসভবনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে জেএসডি আয়োজিত সাংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।



স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ৫টি লক্ষ্য তুলে ধরে আ স ম রব বলেন, স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের দর্শনের ভিত্তিতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকেন্দ্রিক রাষ্ট্র বিনির্মাণ করতে হবে। উপনিবেশিক প্রভুত্বমূলক শাসন ব্যবস্থার বিপরীতে জনগণের অংশগ্রহণমূলক স্বাধীন দেশের উপযোগী শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে হবে। ঐতিহাসিক ১০ এপ্রিল বা ১৭ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণা করতে হবে। বাঙালি জাতীয়তাবাদকে আরও বিকশিত করে বিশ্বের অন্যান্য উন্নত জাতিসত্তার সমকক্ষ করতে হবে। স্বাধীন বাংলা নিউক্লিয়াসসহ স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রকৃত ইতিহাস জাতির সামনে উপস্থাপন করতে হবে এবং অপশাসন, দুর্নীতিগ্রস্ত ও অগণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থার স্থলে গণমুখী, গণতান্ত্রিক ও মানবিক রাষ্ট্র নির্মাণের লক্ষ্যে ‘জাতীয় সরকার’ গঠন করতে হবে।

আ স ম রব আরও বলেন, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সাম্যের ভিত্তিতে নৈতিক এবং মানবিক প্রজাতন্ত্র নির্মাণ করাই হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর উজ্জ্বল স্বাক্ষর।

লিখিত বক্তব্যে জেএসডির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ছানোয়ার হোসেন বলেন, বিগত ৫০ বছরে রাষ্ট্র ও সমাজের বৈষম্য বিপজ্জনক পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। কয়েক কোটি মানুষ কর্মহীন। বাক, ব্যক্তি ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ক্রমাগত সংকুচিত হয়ে আসছে। ভোট চুরি করা, দুর্নীতি ও অপচয় শাসকদের অধিকারে পরিণত হয়েছে। শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হয়েছে। কর্তৃত্ববাদী শাসন ব্যবস্থার কারণে রাজনীতি বিবর্জিত একটা বর্বর সংস্কৃতির উদ্ভব ঘটেছে। বাংলাদেশ আজ দুর্বৃত্ত বৈশিষ্ট্যপূর্ণ রাষ্ট্র হিসাবে চিহ্নিত হচ্ছে। উপনিবেশিক ঘুণে ধরা শাসন ব্যবস্থা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সব অর্জনকে ম্লান করে দিয়েছে। এখনই সময় অমানবিক ও অনৈতিক এ শাসন ব্যবস্থা উচ্ছেদ করা।

তিনি বলেন, জেএসডি  ২ মার্চ পতাকা উত্তোলন দিবস থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারা বছরব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করবে। এসব কর্মসূচির অন্যতম হচ্ছে ২ মার্চ,  ৩ মার্চ,  ৭ মার্চ  ও ১০ এপ্রিল পালনসহ নিউক্লিয়াসের ভূমিকা এবং প্রবাসী সরকারের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন দলের কার্যকরী সভাপতি সা কা ম আনিছুর রহমান খান, মো. সিরাজ মিয়া, তানিয়া রব, কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, অ্যাডভোকেট বেলায়েত হোসেন বেলাল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১
এমএইচ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa