bangla news

মুজিববর্ষে খালেদার দণ্ড মওকুফের আবেদন, জানা নেই ফখরুলের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-১০ ৪:৪৭:১০ পিএম
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকা: মুজিববর্ষে মানবিক কারণে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ড মওকুফ করে মুক্তি দিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন সুপ্রীম কোর্টের একজন আইনজীবী।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সকালে ডাকযোগে বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্টের আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ এই আবেদন করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এটা সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করা হয়নি। এটা আমরা বলতে পারবো না। অন্য কোনো পরিকল্পনা আছে কি-না তাও বলতে পারবো না। এটা আমাদের কাছে বোধগম্য নয়।

অপরদিকে ইউনুছ আলী আকন্দ বাংলানিউজকে বলেন, খালেদা জিয়ার আত্মীয়-স্বজন ও তার দলীয় লোকেরা সবাই ব্যর্থ হয়েছে। আমি জনস্বার্থে মানবিক কারণে আবেদনটি করেছি। যেহেতু বাংলাদেশের সংবিধান শুরু হয়েছে, ‘আমরা বাংলাদেশের জনগণ’। আর মানুষের ধর্ম হলো মানুষের সেবা করা। যেহেতু সংবিধানের প্রস্তাবনা ৪৮ (৩), ৪৯ অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পরামর্শ করে যেকোনো দণ্ড মওকুফ স্থগিত বা হ্রাস করতে পারেন। সেজন্য এই দুজনের কাছে আবেদন করেছি।

তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর ও জনগুরুত্বসম্পন্ন। তাই জনস্বার্থে যেকোনো সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি যে কারও জন্য ক্ষমা চাইতে পারেন।

‘আমি ব্যক্তিগতভাবে কোনো রাজনীতি করি না বা কখনও কোনো দলের সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। তবে মানবিক কারণে একজন বৃদ্ধা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর মুক্তি পাওয়া উচিত বলে মনে করি। সেজন্য আবেদন করেছি। এই আবেদনের কপি আমি আইন সচিব ও স্বরাষ্ট্রসচিবকে দিয়েছি।’

বিএনপির কোনো নেতা বা খালেদা জিয়ার কোনো আত্মীয় স্বজনের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, না, এ বিষয়ে কারও সঙ্গে আমরা যোগাযোগ হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ১০, ২০২০
এমএইচ/এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-10 16:47:10