bangla news

আ’লীগে সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজদের প্রশ্রয় দেবেন না

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-০৯ ৬:৩৩:৩০ পিএম
বক্তব্য রাখছেন শেখ হেলাল। ছবি: বাংলানিউজ

বক্তব্য রাখছেন শেখ হেলাল। ছবি: বাংলানিউজ

বাগেরহাট: বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেছেন, আপনাদের কাছে অনুরোধ দয়া করে দলে কোনো সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের প্রশ্রয় দেবেন না। আপনারা যদি সুসংগঠিত হন, বহিরাগতদের কোনো প্রয়োজন হবে না। আওয়ামী লীগ সংগঠিত থাকলে বিএনপি কোনোদিন ক্ষমতায় আসতে পারবে না।

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের খানজাহান আলী ডিগ্রি কলেজ মাঠে বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, আপনারা আরও সুসংগঠিত হন, এদেশে বিএনপি-জামায়াতের কোনো অস্তিত্ব থাকবে না। তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আমাদের শক্তি। ১/১১ এর সময় নেত্রী যখন জেলে ছিলেন আমাদের দলের অনেকেই সংস্কারের কথা বলেছিলেন। কিন্তু সেদিন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ঠিক ছিল বলেই শেখ হাসিনা আবার ফিরে এসেছেন। আপনারা ঠিক থাকলে আওয়ামী লীগকে আর কোনোদিন ক্ষমতা থেকে নামাতে পারবে না।
সাম্প্রতিক সময়ে যুবলীগের কয়েক নেতার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের প্রসঙ্গ টেনে তিনি আরও বলেন, সবার কাছে আমার একটা অনুরোধ দয়া করে কোনো সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ডাকাতকে আওয়ামী লীগে প্রশ্রয় দেবেন না। আপনারা ভাড়া করা লোক দলে নেবেন না। এরা দলের মধ্যে আসবে, অশান্তি করবে। এদের সুযোগ দিয়েন না। আপনারা এক থাকেন, দলকে শক্তিশালী করেন। বাংলাদেশের সাধারণ জনগণ আপনাদের সঙ্গে আছে।

বিএনপির আন্দোলনের বিষয়ে তিনি বলেন, দল সুসংগঠিত থাকলে দেশে বিএনপির নাম আর থাকবে না। 

এর আগে সোমবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় বাগেরহাট শহরের খানজাহান আলী ডিগ্রি কলেজ মাঠে পতাকা উত্তোলন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য।

সম্মেলন উপলক্ষে সকাল থেকেই জেলার ৯ উপজেলা, ৭৫টি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে দলীয় নেতাকর্মীরা ব্যানার-ফেস্টুনসহ মিছিল নিয়ে সম্মেলনস্থলে আসতে থাকেন। সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যেই নেতা-কর্মীদের উপস্থিতিতে পুরো এলাকা লোকে-লোকারণ্য হয়ে যায়।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন, আমিরুল আলম মিলন, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান টুকু প্রমুখ।

বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মো. মোজাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে বর্তমান কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন কমিটির জন্য সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নাম প্রস্তাব করতে বলা হয়। এসময় ওই দুই পদে একটি করে নাম প্রস্তাবিত হওয়ায় ডা. মোজাম্মেল হোসেন ও শেখ কামরুজ্জামান টুকুকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে পুনরায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। 

এছাড়া বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন ও তার ছেলে বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়কে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঘোষণা করা হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮৩০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৯, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বাগেরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-09 18:33:30