ঢাকা, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

২০১৮ সালের নির্বাচনেও আ’লীগের বিজয় হবে

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭
২০১৮ সালের নির্বাচনেও আ’লীগের বিজয় হবে ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: ২০১৮ সালে বিজয়ের মাসে দেশে নির্বাচন হবে আর স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা রক্ষার্থে সেই নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আবার জয়লাভ করবে আওয়ামী লীগ। ১৯৭১ সালে যেভাবে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে একটি দেশ অর্জন করেছিলাম, ২০১৮ সালে ঠিক সেভাবেই আবার বিজয় অর্জন করবো।

রোববার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুর ১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলার কনফারেন্স রুমে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।  

অ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ও ডিসঅ্যাবিলিটি রাইটস্ ফান্ড এর সহযোগিতায় ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কর্মসংস্থান: গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরাম।

এসময় মন্ত্রী বিএনপি নেত্রীর সমালোচনা করে বলেন, যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে, জ্বালাও পোড়াও করে তাদের অসুস্থ রাজনীতি সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে গণমাধ্যমকে ভূমিকা রাখতে হবে। কারণ মানুষকে সচেতন না করতে পারলে দেশে গণতন্ত্র থাকবে না, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থাকবে না, মুক্তিযুদ্ধে যা অর্জন করেছি তা থাকবে না।

তিনি বলেন, আমি জানি ২০১৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে।

বিএনপির উদ্দেশে তিনি আরো বলেন, আপনারা গণতন্ত্রের কথা বলবেন আর নির্বাচনে আসবেন না তা হবে না। আপনারা যদি মনে করেন নির্বাচন বর্জন করে মানুষ হত্যা করবেন, প্রিজাইডিং অফিসার হত্যা করবেন, ভোটারদের পায়ের রগ কাটবেন, ভোট কেন্দ্র জ্বালিয়ে দেবেন; তা হতে দেওয়া হবে না।  
গত ২৪ ডিসেম্বর খালেদা জিয়া একটি অনুষ্ঠানে বলেছেন, আমরা ২০১৪ সালের নির্বাচন আমরা বাতিল করতে পারিনি, আন্দোলনে ব্যর্থ হয়েছে। এবার আমরা সফল হবো।

মন্ত্রী বলেন, আমি শুধু এইটুকু বলবো, যারা বার বার ব্যর্থ হয় তাদের সফলতার কোনো দৃষ্টান্ত নেই। সুতরাং বিএনপি নেত্রী আপনার সফলতার আশায় গুড়ে বালি। কারণ যে গণহত্যা আপনি চালিয়েছেন বাংলাদেশে আপনাকে জনগণ ভোট দেবে কেন? দেশের মানুষ এখন শান্তিতে আছে। শেখ হাসিনা দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছে।

মতবিনিময় সভায় আয়োজক সংগঠনের মহাসচিব সেলিনা পারভিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মেজর (অব.) ইয়াদ আলী, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুসান্ত কুমার, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব স্বপন চকিদার, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাবান মাহমুদ, সাইট সেভারসের কান্ট্রি ডিরেক্টর খন্দকার আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

** হরিজন সমিতিরও সভাপতি ছিলাম: নৌমন্ত্রী

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭
এসআইজে/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa