ঢাকা, সোমবার, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

খালেদার সাজার ব্যাপারে সরকারের হস্তক্ষেপ নেই

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭
খালেদার সাজার ব্যাপারে সরকারের হস্তক্ষেপ নেই শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের-ছবি-শাকিল আহমেদ

ঢাকা: আদালতের বিচারে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নির্দোষ প্রমাণিত হলে তিনি ছাড়া পাবেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এ ব্যাপারে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শীতার্তদের মধ্যে কম্বল বিতরণকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, আদালতের বিচারে যদি খালেদা নির্দোষ প্রমাণিত হন তাহলে তিনি ছাড়া পাবেন।

আর যদি দোষী হন তবে এখানে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই। ছাড়া পেলেও আদালতের ব্যাপার, দোষী হলেও আদালতের ব্যাপার। আদালত ছাড় দিলেও দিতে পারেন, সাজাও দিতে পারেন। আওয়ামী লীগের চাওয়ার সঙ্গে আদালতের রায়ের কোনো সম্পর্ক নেই।

এসময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপ নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী ঘোষণা সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির এক নেতা তার ছেলেকে সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন। এটা আওয়ামী লীগে সম্ভব নয়। বাবা ছেলের নাম ঘোষণা করছেন এটা কোন গণতন্ত্র।

কম্বল বিতরণ করছেন ওবায়দুল কাদের-শাকিল আহমেদ
তিনি বলেন, প্রার্থী ঘোষণার এই সিস্টেম আওয়ামী লীগে নেই। আমাদের নেত্রী কাউকে সবুজ সংকেত দিতে পারেন কিন্তু সেটা দলের মনোনয়ন বোর্ডে অনুমোদন করতে হবে। তখন সেটা আমাদের মনোনয়ন বোর্ডে চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। এটাই আমাদের পার্টির সিস্টেম। এতেই বোঝা যায় গণতন্ত্র কোন দলে আছে আর কোন দলে নেই।

এ সময় ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা সম্পর্কে বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দল ঐক্যবদ্ধ আছে। সমস্যা হলে শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপে সমাধান হয়। এখানে অন্যায় করলে শাস্তি পাবে না, এটা হয় না। প্রশাসনিক ও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়। ছাত্রলীগের বহু নেতাকর্মী জেলে, খুনের মামলায় এমপি জেলে, মন্ত্রীর ছেলে জেলে, মন্ত্রীরা আদালতে হাজিরা দেন। বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করছে। আমাদের দলে নির্বাচন করার জন্য প্রার্থী বেশি, প্রতিযোগিতা বেশি। প্রতিযোগিতাকে আমরা উৎসাহ দেই। একজনকে মনোনয়ন দিলে সবাই ঐক্যবব্ধভাবে কাজ করে।  

এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের পর কম্বল বিতরণের কাজ শুরু হয়। কম্বল বিতরণের সময় কম্বল নিতে আসা লোকজনের মধ্যে এক পর্যায়ে হুড়োহুড়ি, চেঁচামেচি শুরু হয়।  পরে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে।  

এ কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, দপ্তর সম্পাদক আকতার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭/আপডেট: ১৩২৭ ঘণ্টা
এসকে/আরআর
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa