bangla news

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের শপথ নিয়েছে বিএনপি: ফখরুল

সিনিয়র স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৬-০৩ ৬:২০:৪৭ এএম
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে বিএনপিকে শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে তোলার শপথ নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ঢাকা: গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে বিএনপিকে শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে তোলার শপথ নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
 
শুক্রবার (০৩ জুন) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের নতুন কমিটির নেতাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ শপথ নেওয়ার কথা বলেন তিনি। 

বিএনপির নতুন কমিটির যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকদের নিয়ে এ বৈঠক হয়। সকাল ১১টা থেকে দুপুর পৌনে ১টা পর্যন্ত চলে এ বৈঠক।

চলতি বছরের ১৯ মার্চ বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের পর তিন ধাপে এখন পর্যন্ত ৪০ নেতার নাম ঘোষণা করা হয়েছে।
 
বিএনপির বৈঠক প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, বিএনপির কমিটি (আংশিক) ঘোষণার পর নবনির্বাচিত নেতাদের নিয়ে এটি ছিল প্রথম আনুষ্ঠানিক বৈঠক। দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। এছাড়া দলের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড ভবিষ্যতে কিভাবে আরো উন্নত ও বেগবান করা যায়, সেটা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, বৈঠকে দলকে আরো শক্তিশালী করা এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে বিএনপি যে নেতৃত্ব দেবে সংগঠনকে সেভাবে গড়ে তোলার শপথ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

বিএনপির এ নেতা  বলেন, ক্ষমতাসীনরা  বিরোধী দলের ওপর দমন-পীড়নের মাধ্যমে গণতন্ত্রের সমস্ত স্তম্ভকে ভেয়ে দিয়েছে। দেশকে এ অবস্থা থেকে বের করে আনার জন্য নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সত্যিকার অর্থে সবার অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। 

সরকার অবিলম্বে এ ধরনের নির্বাচনের ব্যবস্থা না করলে দাবি আদায়ে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলনে নামতে হবে উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।
 
এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি এমন একটি রাজনৈতিক দল নির্বাচনের জন্য যাদের আলাদা কোনো প্রস্তুতি নিতে হয় না। ১৯৯১ সালে বিজ্ঞ রাজনীতিবিদ ও বিশ্লেষকরা বলেছিলেন যে, বিএনপি ১০-১১টি আসনে প্রার্থী দিতে পারবে। অথচ দেখা গেল, বিএনপি সরকার গঠন করেছে।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে খুব শিগগিরই দলের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেওয়া হবে, সেখানে আপনারা বিস্তারিত জানতে পাবেন।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হারুন-অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, বিলকিস জাহান শিরিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, সেলিমুজ্জামান সেলিম, জয়ন্ত কুমার কুণ্ডু প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০১৬
এমএস/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2016-06-03 06:20:47