ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

‘বিএনপি-জামায়াত নাশকতামূলক কর্মসূচি দিয়ে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করছে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২২
‘বিএনপি-জামায়াত নাশকতামূলক কর্মসূচি দিয়ে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করছে’

ঢাকা: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্র বিএনপি-জামাত জোট  নাশকতামূলক কর্মসূচি দিয়ে
উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে।

শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বরে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের সমবেত নেতাকর্মীদের এসব কথা বলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ২০১৪-২০১৫ সালের মতো বিএনপি-জামায়াত যাতে অগ্নিসংযোগ-সন্ত্রাস ও মানুষ হত্যা করতে না পারে সেজন্য এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের জন্ম এ দেশের মাটি ও মানুষের মধ্য থেকে। আওয়ামী লীগ এদেশের মানুষের সঙ্গে সম্পৃক্ত। এদেশের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের উন্নয়নের জন্য নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সবসময় দেশের মানুষের পাশে থাকে। এদেশের মানুষের ভাতের ও ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছে আওয়ামী লীগ। করোনা কালে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আপনাদের পাশে ছিল। আজকেও আপনাদের পাশে আছে, আগামীতেও থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনা মহামারী মোকাবিলা করা হয়েছে। বিনামূল্যে ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে যে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সেই সংকট মোকাবিলা করে দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের উন্নয়ন কিন্তু থেমে নেই।

মেট্রোরেল উদ্বোধনের কথা উল্লেখ করে কামাল মজুমদার বলেন, দুই দিন আগে মেট্রোরেল উদ্বোধন করা হয়েছে। মেট্রোরেল উদ্বোধনের সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে মিরপুরের বাসিন্দারা। মেট্রোরেলের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাই।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন বলেন, এই দেশের মাটিতে বিএনপি-জামায়াতের কোনো জায়গা নেই। দেশের উন্নয়ন বিএনপি-জামায়্ত সহ্য করতে পারে না। আপনারা দেখেছেন ২০১৩-২০১৪ সালে কী করেছে বিএনপি-জামায়াত। অগ্নিসংযোগ, সন্ত্রাসসহ পুলিশ থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ হত্যা করেছে তারা। মানুষের শান্তি- নিরাপত্তার জন্য আমরা রাজপথে এসেছি। গণতন্ত্র রক্ষা ও সন্ত্রাসকে মোকাবিলা করার জন্য রাস্তায় নেমেছি।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র মানে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, ধর্ম অন্ধতা, অগ্নিসংযোগ ও মানুষ হত্যা নয়। গণতন্ত্র কী জিনিস আমরা জানি, আমাদেরকে শেখাতে আসবেন না। বিএনপি বলে, ‘আমরা নাকি পাহারাদার’। আওয়ামী লীগ আমাদের পাহারাদারের দায়িত্ব দিয়েছে। আমরা যে কোনো অপশক্তিকে উৎখাত করব।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উত্তর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার মজুমদার, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ নেত্রী রহিমা আক্তার সাথী, উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রউফ নান্নু প্রমুখ।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে সেখানে সমবেত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মিছিল করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২২
এমএমআই/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।