ঢাকা, সোমবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

সরকার পুলিশ কর্মকর্তাদের টিস্যু পেপারের মতো ছুঁড়ে দিচ্ছে: জাহিদ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
সরকার পুলিশ কর্মকর্তাদের টিস্যু পেপারের মতো ছুঁড়ে দিচ্ছে: জাহিদ

রংপুর: পুলিশ বাহিনীর কর্মকর্তাদেরকে আওয়ামী লীগ সরকার নিজেদের স্বার্থে কাজে লাগিয়ে এখন টিস্যু পেপারের মতো ছুঁড়ে ফেলে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

তিনি বলেন, আপনারা যাদের জন্য এতো কিছু করছেন, এখন তারাই আপনাদের অনেক সহকর্মীকে চাকরি থেকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠিয়েছেন।

এসব খবর এখন পত্রিকাতে পাওয়া যাচ্ছে। আপনাদের অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। অর্থাৎ যখন সরকারের কাজ শেষ তখন টিস্যু পেপারের মতো আপনাকেও ছুঁড়ে ফেলে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে রংপুর মহানগরীর গ্রাণ্ড হোটেল মোড়ের বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  

সারাদেশে পুলিশের মিথ্যা মামলা, গায়েবি মামলা, নির্যাতন ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে মহানগর বিএনপি এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

রংপুর মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক সামসুজ্জামান সামুর সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক ও জাহাঙ্গীর আলম।  

সমাবেশে ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার বলেছিল তারা ১০ টাকা কেজিতে চাল খাওয়াবেন। কিন্তু এখন চালের কেজি ৭০-৯০ টাকা। ঘরে ঘরে চাকরি দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু চাকরি দেওয়ার বদলে এখন চাকরি চলে যায়। তারা বলেছিলেন, বিনা পয়সার সার দিবেন। অথচ এখন ৩০০ টাকার সারের বস্তা ১৪০০ টাকাতেও পাওয়া যায় না। কারণ, এই দলের নাম আওয়ামী লীগ, যারা জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে না। তারা প্রশাসন, আইন-আদালত আর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে ক্ষমতাকে আঁকড়ে ধরে থাকায় বিশ্বাসী।  

১০ ডিসেম্বর ঢাকার বিভাগীয় গণসমাবেশকে ঘিরে সরকার নতুন ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নেতাকর্মীদের কোণঠাসা করার পায়তারা করা হচ্ছে দাবি করেন তিনি।  

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, শর্ত দিয়ে বিএনপির আন্দোলন দমানো যাবে না। নতুন করে ষড়যন্ত্র করছে সরকার। তবে যত বাধাই আসুক বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজপথে থাকবে। সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে।

প্রধান বক্তা আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, সরকার খেলা হবে ভয়ভীতি সৃষ্টির পায়তারা করছে। অথচ আমরা তো ফাইনাল খেলার জন্য প্রস্তুত। বিশ্বকাপ ফুটবলের মতো ধাপে ধাপে ফাইনালের দিকে যাচ্ছে বিএনপি। এবার রাজপথেই ফয়সালা হবে। আওয়ামী লীগের খেলা হবে স্লোগানের জবাব জনগণই দিবে।

এদিকে বেলা দুইটার দিকে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সম্মুখ ফটকের সামনের সড়কে অস্থায়ী মঞ্চে সমাবেশ শুরুর কথা থাকলেও পুলিশ তা করতে দেয়নি।  

পুলিশি বাধায় সমাবেশ করতে না পেরে কার্যালয়ের সরু গলির ভেতরে ট্রাকে তৈরি অস্থায়ী মঞ্চে সমাবেশ করে দলটি।  
এসময় সমাবেশ থেকে পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তব্য দেন মহানগর বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের পাশাপাশি অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।  

বাংলাদেশ সময় ১৯২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa