ঢাকা, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ জুন ২০২২, ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

অফবিট

হোটেল রিসিপশনে রোবট ডায়নোসর!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩১৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮
হোটেল রিসিপশনে রোবট ডায়নোসর! হোটেল রিসিপশনে রোবট ডায়নোসর

পূর্ব টোকিও’র ‘হেন-না’ হোটেলে আগত অতিথিরা প্রথমে হয়তো একটু ভয় পেয়ে যেতে পারেন। কারণ তাদের স্বাগত জানাতে হোটেলের রিসিপশন ডেস্কে অপেক্ষা করছে রোবট ডায়নোসর। সেন্সরের মাধ্যমে অতিথির উপস্থিতি টের পেলেই স্বাদরে সম্ভাষণ জানাবে রোবটগুলো।

রোবট কর্মচারী দ্বারা পরিচালিত বিশ্বের প্রথম হোটেলব্যবস্থা তারাই শুরু করেছে, এমনটাই দাবি এ হোটেল কর্তৃপক্ষের। এ উদ্যোগ হয়তো সবচেয়ে বিচিত্র চেক-ইন অভিজ্ঞতা দেবে অতিথিদের।

হোটেলের ফ্রন্ট ডেস্কে দেখা মিলবে বেলবয়ের টুপি পরা একজোড়া ডায়নোসরের। অতিথিদের জাপানি, ইংরেজি, চীনা ও কোরিয়ান- এই চার ভাষায় যোগাযোগের সুযোগ করে দেবে এই বহুভাষী রোবো-ডায়নোসরেরা।

এছাড়াও হোটেলের রুমে রয়েছে মিনি রোবট, যারা দেখতে অনেকটা স্টার ওয়ারস্‌ সিনেমার বিবি-এইটের মতো। অতিথিদের টেলিভিশনের চ্যানেল পাল্টানো থেকে শুরু করে গানবাজনা শুনতে সহায়তা করবে এ রোবটগুলো।

জানা যায়, সেখানে কেবল কর্মচারীরাই রোবট নয়, অ্যাকুরিয়ামে সাঁতার কাটতে থাকা মাছগুলোও ব্যাটারিচালিত।

ওই হোটেলে নিজের তিন বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে বেড়াতে আসা শিগুসা হোসোই বলেন, ভেবেছিলাম আমার ছেলে ডায়নোসরগুলো দেখে মজা পাবে, কিন্তু এরা দেখতে খুব বিদ্ঘুটে। তবে রুমের ডিম্বাকৃতির রোবট দেখে খুবই খুশি আমার ছেলে। এর সঙ্গে খেলাধুলা করে অনেকটা সময় কাটিয়েছে সে।

হেন-না হোটেল যাত্রা শুরু করে ২০১৫ সালে নাগাসাকি শহরে। রোবট কর্মচারী দ্বারা পরিচালিত বিশ্বের প্রথম হোটেল হিসেবে ওই বছরেই নাম লেখায় গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে। বর্তমানে জাপানের বিভিন্ন শহরে তাদের ৮টি শাখা রয়েছে। তবে তুলনামূলক মানবাকৃতির রোবট দ্বারা পরিচালিত এর বাকি শাখাগুলো।

হোটেল কর্তৃপক্ষ মনে করে, ফ্রন্ট ডেস্ক থেকে শুরু করে ধোয়ামোছার কাজে রোবটের ব্যবহার হতে পারে দেশটির ক্রমহ্রাসমান শ্রমবাজারের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর একটি অন্যতম উদাহরণ।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৮
এনএইচটি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa