ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

বৈশ্বিক অভিযোজনে অর্থায়ন-রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাব

মহিউদ্দিন মাহমুদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২, ২০২১
বৈশ্বিক অভিযোজনে অর্থায়ন-রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গ্লাসগো (স্কটল্যান্ড) থেকে: অর্থায়ন এবং শক্তিশালী রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য বৈশ্বিক অভিযোজন কার্যকর হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (০১ নভেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেলে গ্লাসগোতে ‘অ্যাকশন অ্যান্ড সলিডারিটি: দ্য ক্রিটিক্যাল ডিকেইড’ বিষয়ে লিডার্স মিটিংয়ে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাগি এ ইভেন্টের আয়োজন করেন।

জলবায়ু অর্থায়ন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিযোজন সংকট মোকাবিলায় উন্নত দেশগুলোকে অভিযোজন এবং প্রশমনে অর্ধেক অর্ধেক ভিত্তিতে ১০০ বিলিয়ন ডলার সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে হবে।

স্বল্প খরচে গ্রিন এবং ক্লিন প্রযুক্তি হস্তান্তরের মাধ্যমে জলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে সহায়তার করার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

জলবায়ু পরিবর্তন সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশের কার্যক্রম প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হওয়া সত্ত্বেও অভিযোজন এবং প্রশমন উদ্যোগ নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ বিশ্বে অগ্রগামী।

‘মুজিব ক্লাইমেট প্রসপারিটি প্ল্যান’ এর মাধ্যমে বাংলাদেশ এই বছর সারা দেশে ৩ কোটি বৃক্ষরোপণ করার কথা উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে (কপ২৬) যোগ দিতে বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে রোববার (৩১ নভেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেলে গ্লাসগোতে আসেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে বাংলাদেশ সময় রোববার সকালে ঢাকা থেকে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী।

গ্লাসগোতে অবস্থানকালে জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে সোচ্চার ‘ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম’ প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কপ-২৬ সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্ব এবং রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানদের বক্তব্য সেশন ছাড়াও সাইড লাইনে অনেকগুলো ইভেন্টে অংশ নেবেন।

পাশাপাশি শেখ হাসিনা বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান এবং বিভিন্ন সংস্থা প্রধানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন।

গ্লাসগোতে অবস্থানের দিনগুলোতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পর্যায়ক্রমে কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড, শ্রীলঙ্কার  রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপক্ষে, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটসের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, স্কটল্যান্ডের ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টারজিয়ন, ব্রিটিশ রাজসিংহাসনের উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লস, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর স্কট মরিসন, স্কটিশ পার্লামেন্টের স্পিকার অ্যালিসন জনস্টোনের বৈঠক করবেন।

গ্লাসগো সফর শেষে বুধবার (০৩ নভেম্বর) দুপুরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে লন্ডন যাবেন প্রধানমন্ত্রী। লন্ডনে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ শেষে ০৯ নভেম্বর বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে দ্বিপাক্ষিক সফরে প্যারিস যাবেন তিনি।

প্যারিস সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এবং দেশটির প্রধানমন্ত্রী জিন ক্যাটেক্সের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন।

এছাড়াও ফ্রান্স সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইউনেস্কো সদর দপ্তরে ‘ইউনেস্কো-বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর দ্য ক্রিয়েটিভ ইকোনমি’ বিতরণ অনুষ্ঠান এবং ইউনেস্কোর ৭৫তম বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

আগামী ১৪ নভেম্বর দেশে ফেরার কথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

আরও পড়ুন:
** শেখ হাসিনাকে গুতেরেস-বরিস জনসনের উষ্ণ অভ্যর্থনা
** ১০ কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিল করেছে বাংলাদেশ

** সিভিএফ-কমনওয়েলথকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

**গ্লাসগো সম্মেলনে ৬ প্রস্তাব শেখ হাসিনার

বাংলাদেশ সময়: ০০০৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ০২, ২০২১
এমইউএম/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa