bangla news

রোহিঙ্গাদের মোবাইল সুবিধা বন্ধের নির্দেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০২ ৩:২৫:২৫ পিএম
রোহিঙ্গা ক্যাম্প

রোহিঙ্গা ক্যাম্প

ঢাকা: বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মোবাইল সুবিধা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মন্ত্রীর নির্দেশে আগামী সাত দিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত ব্যবস্থা নিতে অপারেটরদের নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি।

টেলিযোগাযোগ বিভাগ জানায়, রোহিঙ্গাদের শুরু থেকেই মোবাইল সুবিধা প্রদান না করার জন্য সব মোবাইল অপারেটরসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া সত্ত্বেও ক্যাম্পে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর হাতে সিম ও রিম ব্যবহৃত হচ্ছে বলে বিভিন্ন মাধ্যমে জানা যায়।

এই সংক্রান্ত বিষয়ে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

বিটিআরসি সেই পরিপ্রেক্ষিতে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কোনো প্রকার সিম বিক্রি, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মাধ্যমে সিম ব্যবহার বন্ধ তথা তাদেরকে মোবাইল সুবিধা প্রদান না করার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য সব মোবাইল অপারেটরকে রোববার (০১ সেপ্টেম্বর) জরুরি নির্দেশ দিয়েছে।

বিটিআরসি নির্দেশনায় বলা হয়েছে, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা ও গুরুত্ব বিবেচনা, আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও জনসুরক্ষার স্বার্থে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী যাতে মোবাইল সুবিধা না পায় এ বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য আপনাদের সংস্থাগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কমিশন থেকে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকারী কমিটি থেকে এবং বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা, গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মাধ্যমে ব্যাপক হারে সিম/রিম ব্যবহার সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া গেছে।

‘এমতাবস্থায়, আগামী সাত কার্য্যদিবসের মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কোনো ধরনের সিম বিক্রি, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মাধ্যমে সিম ব্যবহার বন্ধ তথা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মোবাইল সুবিধা প্রদান না করা সংক্রান্ত সব ব্যবস্থা নিশ্চিত করে বিটিআরসিকে অবহিতকরণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হলো।’

রোববার বিটিআরসি’র এই নির্দেশনা জারি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

নিয়মানুযায়ী, জাতীয় পরিচয় তথ্যভাণ্ডারে (এনআইডি) সংরক্ষিত তথ্যের সঙ্গে আঙুলের ছাপ মিললেই সিম বিক্রি কিনতে পারবেন। তবে অভিযোগ রয়েছে, কক্সবাজারে কিছু স্থানীয় অসাধু ব্যক্তি সিম কিনে অর্থের বিনিময়ে রোহিঙ্গাদের দিয়েছেন। 

দেশে চার অপারেটরের সবগুলোরই সিম রোহিঙ্গাদের হাতে রয়েছে বলে জানা গেছে। 

রবি’র চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, এনআইডিতে সংরক্ষিত তথ্যের সঙ্গে বায়োমেট্রিক যাচাইকরণের মাধ্যমে একজন ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পরেই একটি মোবাইল সিম বিক্রি করা হয়। অর্থাৎ মোবাইল সিম কিনতে হলে একজন ব্যক্তির বৈধ জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে। 

‘আমরা বিশ্বাস করি যে, সিম সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার সমাধান শুধুমাত্র বৈধ নাগরিকদের আঙুলের ছাপ (ফিঙ্গারপ্রিন্ট) ও এনআইডি ডাটাবেজে নিবন্ধন নিশ্চিত করার মধ্যেই নিহিত রয়েছে।’

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৯/আপডেট: ১৫৪২ ঘণ্টা
এমআইএইচ/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রোহিঙ্গা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-02 15:25:25