ঢাকা, সোমবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ২২ জুলাই ২০১৯
bangla news

সৈয়দপুরে আড়াই কোটি টাকার খাস-পরিত্যক্ত জমি উদ্ধার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-২৬ ৮:৪৩:৫৭ পিএম
খাস জমি উদ্ধার করে লাল নিশান লাগানো হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজ

খাস জমি উদ্ধার করে লাল নিশান লাগানো হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজ

নীলফামারী: নীলফামারীর সৈয়দপুরে প্রায় আড়াই কোটি টাকা মূল্যের সরকারি খাস ও পরিত্যক্ত জমি উদ্ধার করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার দুপুরে (২৬ ফেব্রুয়ারি) উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) নেতৃত্বে ওই জমি উদ্ধার করা হয়। এ সময় উদ্ধারকৃত জমিতে লাল নিশান স্থাপন করা হয়েছে।

ভূমি অফিস জানায়, উপজেলার ১ নম্বর কামারপুকুর ইউনিয়নের ধলাগাছ মৌজার জে এল নম্বর ৩৫-এ ৫ একর ৩২ শতক সরকারি খাস ও পরিত্যক্ত জমি রয়েছে। এর মধ্যে খাস ২ একর ১৮ শতক এবং পরিত্যক্ত ৩ একর ১৪ শতক। দীর্ঘদিন ধরে একই এলাকার প্রভাবশালী মৃত জোবায়দুল ইসলাম গং, ইঞ্জিনিয়ার মো. মতিয়ার রহমান, আব্দুল মজিদ ও আমিনুল ইসলাম গং সরকারি ওই খাস ও পরিত্যক্ত জমি ভোগদখল করে আসছিলেন। 
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকারের নেতৃত্বে ওই জমি উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। বিকেল পর্যন্ত ওই জমি মাপ শেষে সীমানা নির্ধারণ করে সেখানে লাল নিশান স্থাপন করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত জমির বাজারমূল্য প্রায় আড়াই কোটি টাকা বলে জানা গেছে। 

জমি উদ্ধার অভিযানে কামারপুকুর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. আশিকুর রহমান, সৈয়দপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সোলায়মান আলী, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) নুর আমিন, অন্যান্য পুলিশ সদস্যসহ উপজেলা ভূমি অফিসের বিপুল সংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
 জমি উদ্ধার অভিযানকালে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম গোলাম কিবরিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সব জমির দখলকারীকাদের একজন আমিনুল ইসলামের সঙ্গে সরেজমিন কথা হয়। তিনি জানান, সরকারি জমি সরকার উদ্ধার করেছে। এতে আমদের সহযোগিতা ছিল।
সৈয়দপুর উপজেলা কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার বলেন, উদ্ধারকৃত ওই জমিতে ভূমিহীনদের পুনর্বাসন করা হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নীলফামারী
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-02-26 20:43:57