ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৪ মে ২০১৯
bangla news

কীর্তিমানদের অনুসরণে জীবন গড়, নতুন প্রজন্মকে হাসিনা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-২০ ৭:৫৫:৪৭ পিএম
একুশে পদক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

একুশে পদক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

ঢাকা: কীর্তিমানদের জীবন অনুসরণ করে নিজেদের ভবিষ্যতের জন্য গড়ে তুলতে নতুন প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে একুশে পদক প্রদান অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

একুশে পদক পাওয়া গুণীজনদের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আজকে যারা একুশে পদক পেয়েছেন তারা আমাদের গুণীজন। তারা স্ব স্ব ক্ষেত্রে কীর্তিমান। দেশ ও জাতির জন্য তাদের বিশাল অবদান রয়েছে, সেই অবদানের কথা সব সময় আমরা স্মরণ করি।

নতুন প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, আমি মনে করি আগামীদিনের প্রজন্ম কীর্তিমান মানুষদের অনুসরণ করে নিজেদের জীবন গড়ে তুলবে।

উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে শেখ হাসিনা বলেন, এই দেশকে আমরা সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। উন্নত সমৃদ্ধ জাতি হিসেবে বিশ্বসভায় মাথা উঁচু করে চলতে চাই। এটাই আমাদের লক্ষ্য। আর সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পদকপ্রাপ্তরা। ছবি: পিআইডিএকুশের মহান চেতনার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা মাথা উঁচু করে চলবো। একুশ আমাদের শিখিয়েছে মাথা উঁচু করে চলার, একুশ আমাদের শিখিয়েছে মাথা নত না করার, শিখিয়েছে কিভাবে নিজের অস্তিত্ব রক্ষা করা যায়, কিভাবে নিজের মাতৃভাষাকে রক্ষা করা যায়।

পড়ুন>>কীর্তিমানদের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

‘মাতৃভাষার সাথে সাথে আমাদের শিক্ষা সংস্কৃতি ঐতিহ্য সবকিছুকে রক্ষা করতে হবে, মর্যাদা দিতে হবে,’ যোগ করেন তিনি। 

সবাইকে এক হয়ে দেশ গড়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসুন, আমরা আমাদের এই মাতৃভূমিকে গড়ে তুলি। আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের ঐতিহ্য সবকিছু নিয়ে আমরা বিশ্বে একটা অনন্য মর্যাদা নিয়ে চলতে চাই। জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে চাই।

‘আমাদের স্বাধীনতা, আমাদের ভাষার অধিকার আমাদের কৃষ্টি এটাকে রক্ষা করে, চর্চা করা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটা সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করা আমাদের কর্তব্য।’

তিনি বলেন, আমরা অনেক সংগ্রামের পথ দিয়ে যে স্বাধীনতা অর্জন করেছি তার সুফল যেন আগামী প্রজন্ম পায়, স্বাধীনতার সুফল যেন আগামী প্রজন্ম ভোগ করতে পারে, সেজন্য আমরা কাজ করছি।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। এ সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল স্বাগত বক্তব্য দেন। 

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। 

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯
এমইউএম/এমএ 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-02-20 19:55:47