[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৬ চৈত্র ১৪২৫, ২০ মার্চ ২০১৯
bangla news

দীঘিনালা বন বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১১-০৯ ৬:৩৯:০৬ পিএম
চীবর মাথায় এক ভক্ত, ছবি: বাংলানিউজ

চীবর মাথায় এক ভক্ত, ছবি: বাংলানিউজ

খাগড়াছড়ি: একমাস ধরে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দানোত্তম কঠিন চীবর দানোৎসব চলছে পার্বত্য চট্টগ্রামের হাজারো বিহারে।

খাগড়াছড়ির সবচেয়ে বড় কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত হচ্ছে জেলার দীঘিনালা বন বিহারে। দু’দিনব্যাপী এ উৎসবে জেলা ও জেলার বাইরের ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে হাজার হাজার মানুষের সমাবেশ ঘটে।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) সকালে বিহার প্রাঙ্গণে আয়োজিত বিশাল ধর্মীয় সমাবেশে দেশনা (ধর্মীয় বক্তব্য) দিয়েছেন দীঘিনালা বন বিহারের অধ্যক্ষ নন্দপাল মহাস্থবির। তিনি বনভান্তের প্রধানতম শিষ্য।

গৌতম বুদ্ধর সময় বিশাখার প্রবর্তিত নিয়ম অনুসরণ করে দু'দিনব্যাপী এই দানোত্তম কঠিন চীবর দান উৎসবটি। এ বিহারের ২০তম কঠিন চীবর দান। এছাড়া জেলার বিভিন্ন বৌদ্ধ বিহারের ৫৮ জন বৌদ্ধ ভিক্ষু উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী অংশ নেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তুলা থেকে সুতা, ওই সুতায় রঙ লাগিয়ে চীবর তৈরি করেন শত শত দায়ক-দায়িকা। সেই চীবর ভান্তেদের উৎসর্গ করা হয়।

এছাড়াও সংঘদান, অষ্ট পরিষ্কারদান, বৌদ্ধ মূর্তি দান, ভিক্ষুদের পিন্ড দানসহ বিভিন্ন দান করা হয়। সন্ধ্যার পর ফানুস বাতি উত্তোলন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ৯, ২০১৮
এডি/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   খাগড়াছড়ি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache