bangla news

সাংসদ লুৎফুল হাই সাচ্চু মারা গেছেন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১১-২২ ২:৪৫:২২ এএম

আওয়ামী লীগের সাংসদ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কীত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট লুৎফুল হাই সাচ্চু আর নেই। সোমবার রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে...রাজেউন)।

ঢাকা: আওয়ামী লীগের সাংসদ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কীত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট লুৎফুল হাই সাচ্চু আর নেই। সোমবার রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে...রাজেউন)।

মুক্তিযুদ্ধের সময় ২ ও ৩ নম্বর সেক্টরের গেরিলা উপদেষ্টা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন তিনি।

গত নির্বাচনে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আমানুল হক সেন্টু বাংলানিউজকে জানান, সকাল ১১টার দিকে হঠাৎ করে অসুস্থ বোধ করলে তাকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সাড়ে ১১টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাদ আছর গুলশানের আজাদ মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার সকাল ৯টায় সংসদ ভবনের দণি প্লাজায় দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মৌলভীপাড়াস্থ বাসভবনে তার লাশ আনা হবে।

মঙ্গলবার সদর উপজেলার সুহাতা গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

আমাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি উজ্জ্বল চক্রবর্তী জানান, লুৎফুল হাই সাচ্চুর মৃত্যুর খবরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মী লুৎফুল হাই সাচ্চুর মৌলভীপাড়াস্থ বাসভবনের সামনে ভিড় করেছেন। স্বজনরা এসময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

এদিকে জেলা আওয়ামী লীগ তিন দিনের শোক কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে রয়েছে কালো ব্যাজ ধারণ, কালো পতাকা উত্তোলন এবং মসজিদ মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা।

সাংসদ লুৎফুল হাই সাচ্চু মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট হারুণ আল রশীদ। তিনি বলেন, ‘তার মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী একজন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক এবং পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদকে হারালো।’

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-11-22 02:45:22