ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

নান্দাইলে জামতলা বাজারে প্রভাবশালীদের অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ

নান্দাইল প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০১৩
নান্দাইলে জামতলা বাজারে প্রভাবশালীদের অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ

নান্দাইল(ময়মনসিংহ): ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মুশুলী ইউনিয়নের ৪২ বছরের পুরোনো জামতলা বাজারের সরকারি ভূমি দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।  

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের কিনারা ঘেঁষে অবস্থিত জামতলা বাজারে নির্মান করা হচ্ছে এসব স্থাপনা।



বাজারের ব্যবসায়ীরা বাংলানিউজকে জানান, উপজেলার সুন্ধিরবন গ্রামের মো. আতাউর রহমান ভুইয়ার ছেলে শামছুল হক ভুইয়া এ অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করছেন। তাকে ওই কাজে সহায়তা করছেন মুশুলি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব খান কচি। অবৈধ স্থাপনাটির পাশে বাঁশের খুঁটি পুঁতে আরও কিছু জায়গা ওই নেতা নিজের দখলে নিয়ে নিয়েছেন।

আহসান হাবিব খান কচি বাংলানিউজকে বলেন, এক সময় বাজারে তার দুটি দোকান ছিল। বিগত সরকারের আমলে প্রশাসন সেগুলো উচ্ছেদ করে দিয়েছিল। তিনি এখন তার পূর্বের ওই জায়গায় দোকান নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছেন।

তিনি কোনো রাজনৈতিক প্রভাব খাটাননি বলে দাবি করেন।

তবে বাজার ঘুরে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র। পুরো বাজার জুড়ে অনেকেই তার মতো বাঁশের খুটি পুঁতে জমির দখল নিয়ে নিচ্ছেন।

শামছুল হক ভুইয়া বাজারের ভূমি দখল প্রসঙ্গে জানান, ওই জমিটি তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। সরকার তাদের জমি খাস খতিয়ানভূক্ত করে বাজার প্রতিষ্ঠা করলেও এ জন্যে তাদের কোন ক্ষতিপূরণ দেয়নি। এ নিয়ে তারা ময়মনসিংহ জেলা জজ আদালতে আপিল মোকদ্দমা (নং ৯৫/২০০৭) দায়ের করেছেন। মোকদ্দমাটি এখনও বিচারাধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

পৈত্রিক জমিতে দোকান নির্মাণ করে তারা কোন অন্যায় করেননি বলে দাবি করেন তিনি।

এ বিষয়ে মুশুলি ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা একেএম বদরুল ইসলাম বলেন, জামতলা বাজারটি ১৯৯৮ সালে পেরিফেরিভূক্ত হওয়ার পর উপজেলা প্রশাসন বাজারটির ইজারা ডাক প্রদান করে আসছে। এখন হঠাৎ করেই তহবাজারের (হাটের খোলা জায়গা) ভূমি ব্যক্তিগত সম্পত্তি দাবি করে স্থাপনা তুলছেন এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালীরা।

এ বিষয়ে জামতলা বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী ও পল্লী চিকিৎসক মকবুল হোসেন জানান, তিনিসহ ১৫ জন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ভূমি অফিস থেকে একসনা বন্দোবস্ত নিয়ে বাজারে দোকান পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু গত সোমবার হঠাৎ করেই তাদের বন্দোবস্ত পাওয়া দোকানের সামনে স্থাপনা নির্মাণ করছে একটি প্রভাবশালী মহলের লোকজন।

সরকারি জমি দখলের প্রতিকার চেয়ে বাজারের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে তিনি নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ মিয়ার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন বলে জানান।

ইউএনও অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, জমি দখলমুক্ত করার জন্যে মুশুলি ইউনিয়ন ভূমি কার্যালয়কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সহকারী ভূমি কর্মকর্তার কাঝে আবার জানতে চাইলে একেএম বদরুল ইসলাম জানান, তদন্ত করে বাজারের পেরিফেরি জমি অবৈধভাবে দখলের সত্যতা পাওয়া গেছে।

৭ জানুয়ারি এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন সহকারী কমিশনারের কাছে ও একটি অনুলিপি নান্দাইল মডেল থানায়ও জমা দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার জাহিদুল ইসলাম অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৩
সম্পাদনা: সোহেলুর রহমান, নিউজরুম এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa