ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৩ মে ২০২৪, ১৪ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

বাড়ির পাশে গাব গাছে ঝুলছিল শ্রমিক লীগ নেতার মরদেহ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
বাড়ির পাশে গাব গাছে ঝুলছিল শ্রমিক লীগ নেতার মরদেহ

রাজবাড়ী: রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে নরেশ চন্দ্র বিশ্বাস (৫৪) নামে এক শ্রমিক লীগ নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২২ এপ্রিল) সকালে বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের চৌধুরীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নরেশ বিশ্বাস বালিয়াকান্দি উপজেলা শ্রমিকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি বালিয়াকান্দি কলেজ এলাকায় মোটরসাইকেল মেকানিকের কাজ করতেন।

নিহতের ছেলে নিরুপম বিশ্বাস বলেন, বাবা প্রতিদিনের মতো ভোর ৫টার দিকে হাঁটতে বের হন। সকাল পৌনে ৬টার দিকে আমার মা ডলি রানী বিশ্বাস বাড়ি থেকে পাকা রাস্তার দিকে যাওয়ার পথে প্রতিবেশী নিহার রঞ্চনের জমির ওপর গাব গাছের ডালের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগা ঝুলন্ত অবস্থায় বাবাকে দেখতে পান। পরে মায়ের ডাক চিৎকার শুনে আমিসহ স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে বাবার মরদেহ দেখতে পাই।  

তিনি আর বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের বাড়ি যাতায়াতের জন্য একটি রাস্তা নির্মাণ করার চেষ্টা করছিলেন। তবে প্রতিবেশীরা রাস্তার জন্য জমি দিতে রাজি হচ্ছিল না। বাবা এ বিষয় নিয়ে মানসিকভাবে খুব বিপর্যস্ত ছিলেন। আমাদের ধারণা, রাস্তা করতে না পারার কষ্টে বাবা গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে তদন্তে জানা গেছে, বাড়ির পাশের একটি দাগে নরেশ চন্দ্র বিশ্বাসসহ তার চার থেকে পাঁচজন প্রতিবেশীর জমি রয়েছে। তবে জমিটি বণ্টন নামা করা নেই। ওই জমির ওপর দিয়ে নরেশ চন্দ্র বিশ্বাসের বাড়ি যাতায়াতের পায়ে হাঁটার রাস্তা ছিল। তিনি রাস্তায় মাটি ফেলে চলাচলের উপযোগী ভালো রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করছিলেন। গতকাল তিনি ভেকু দিয়ে মাটি কাটতে গেলে অন্য জমির মালিকরা বাঁধা দেন এবং কটু কথা বলেন। এ বিষয়টি নিয়ে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। অবশেষে তিনি হতাশা থেকে বাঁচতে আত্মহত্যা করেন।  

ওসি আরও বলেন, নরেশ চন্দ্র বিশ্বাসের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নরেশ চন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে নিরুপম বিশ্বাস বালিয়াকান্দি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।