ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

দুপুরে গোসলের পর ছেলের কপালে কালো টিপ, বিকেলে মর্গে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
দুপুরে গোসলের পর ছেলের কপালে কালো টিপ, বিকেলে মর্গে বাঁয়ের ছবিতে চাচির কোলে শিশু লাবিব, ডানের ছবিতে তার শোকাহত মা-বাবা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দুপুরে গরম পানি করে গান শুনিয়ে এক মাস ২২ দিন বয়সী সন্তান লাবিবকে গোসল করিয়ে কপালে কালো টিপ দিয়ে দিলেন মা বিথী আক্তার। বিকেলেই সেই সন্তানের মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে।

গোসলের কিছুক্ষণ পর চাচার ছোড়া দইয়ের পাতিল লাবিবের মাথায় এসে আঘাত করে। সঙ্গে সঙ্গে নিথর অবস্থায় তাকে নেওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পরে চিকিৎসক জানান, বাঁচানো সম্ভব হলো না লাবিবকে।

লাবিবের পরিবারের বাস যাত্রাবাড়ীর মাতুয়াইল কবরস্থান রোড এলাকায় একটি ভাড়া বাসায়। বাবা ইলেকট্রিক কারখানার শ্রমিক দীন ইসলাম। স্ত্রী বিথী আক্তারসহ পরিবারের অন্য সদস্যরাও একই বাসায় থাকেন।  

জানা গেছে, দুপুরের দিকে বাইসাইকেল চালানো নিয়ে দীন ইসলাম ও তার ছোট ভাইয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। ছোট ভাই খাইরুল কয়েল জ্বালানোর জন্য বাসায় থাকা মাটির তৈরি শক্ত দইয়ের খালি পাতিল বড় ভাইয়ের দিকে ছুড়ে মারেন।  

পাতিলটি গিয়ে লাগে ভাতিজা লাবিবের মাথায়। সে তখন মায়ের কোলেই ছিল। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।  

সন্তানের মৃত্যুর সংবাদ শোনার সঙ্গে সঙ্গে ২০৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রবেশমুখে কান্নাকাটি শুরু করেন মা বিথী আক্তার। এ সময় আর্তনাদ করে তিনি বলতে থাকেন, এই প্রথম সন্তান আমার। দেড় মাস বয়স লাবিবের। আমার কলিজার টুকরা। প্রায় সময় আমি তাকে গান শোনাতাম। গান শুনে লাবিব মিষ্টি হাসি দিত, হাত পা ছোড়াছুড়ি করত।  

তাকে বলতে শোনা যায়, আজও গান শুনিয়ে গোসল করাই ছেলেকে। গোসলের পর ছেলের মাথায় টিপ দিই নজর এড়াতে। এমন সময় শুনতে পাই দুই ভাই সাইকেল নিয়ে ঝগড়া করছে। ছেলেকে কোলে নিয়ে স্বামীর পাশে গিয়ে দাঁড়াই। এ সময় আমার স্বামী দ্বীন ইসলামের ছোট ভাই খাইরুল দইয়ের পাতিল ছুড়ে মারে। সেটি এসে লাগে লাবিবের মাথায়।  

এসব কথা বলতে বলতে আর্তনাদ করতে থাকেন সন্তানহারা বিথী। তাকে জাপটে ধরে থাকেন স্বামী দ্বীন ইসলাম। স্ত্রীকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন। তবে সন্তান হারানো এ বাবার চোখ দিয়ে অঝোরে অশ্রু ঝরতে থাকে।  

প্রথমে হাসপাতালে স্বজনরা সাংবাদিকদের বলেন, লাবিব ইটের আঘাতে মারা গেছে। পরে অবশ্য জানা যায়, ইট নয়, দইয়ের পাতিলের আঘাতে মারা যায় শিশুটি।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজুল আলম বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, দুই ভাইয়ের ঝগড়ার এক পর্যায়ে কোনো কিছু নিক্ষেপ করলে তা শিশুটির মাথায় গিয়ে আঘাত করে। পরে হাসপাতালে মারা যায় শিশুটি। ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
এজেডএস/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।