ঢাকা, শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

আইন ও আদালত

যৌতুকের জন্য স্ত্রী-হত্যা, স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ৭, ২০২১
যৌতুকের জন্য স্ত্রী-হত্যা, স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

ঢাকা: সাড়ে তিন বছর আগে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানাধীন হযরতনগর এলাকায় যৌতুকের জন্য স্ত্রী তানিয়া আক্তারকে হত্যার দায়ে স্বামী আল-আমিনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল- ৪ এর বিচারক তাবাসসুম ইসলামের আদালত আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।



মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি তাকে আরও এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর মো. ফোরকান মিয়া বিষয়টি জানান।  

তিনি বলেন,‘ শিশু বয়স থেকেই আল-আমিন খুবই দুর্ধর্ষ প্রকৃতির ছেলে। কিশোর বয়সে তিনি আরও দুটি খুন করেছেন। খুন করার ক্ষেত্রে তিনি সিদ্ধহস্ত। ’ 

রায় ঘোষণার সময় আল-আমিনের মা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তখন আল-আমিন চিৎকার করে তার মাকে সান্ত্বনা দিয়ে বলেন, ‘মা তুমি চিন্তা করো না, আমার কিছুই হবে না। ’ 

জানা যায়, ২০১৮ সালের ১৮ মার্চ তানিয়া আক্তারের কাছে তিন টাকা যৌতুক দাবি করেন আল-আমিন। যৌতুক দিতে অস্বীকৃতি জানালে আল-আমিন তার হাতে থাকা সুইচগিয়ার চাকু দিয়ে তানিয়াকে আঘাত করেন। এরপর ঘটনাস্থলে ভিকটিমের মৃত্যু হয়।  

এ ঘটনায় ভিকটিমের মা আনোয়ারা বেগম আনু বাদী হয়ে কামরাঙ্গীরচর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি তদন্ত করে ওই বছরের ১১ জুন সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ পরিদর্শক মোস্তফা আনোয়ার আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ওই বছরের ২৪ আগস্ট মামলাটি বিচারের জন্য ট্রাইব্যুনালে আসে। একই বছরের ৪ অক্টোবর আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল।  

মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত চার্জশিটভুক্ত ১৬ সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

বালাদেশ সময়: ১৬৪৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৭, ২০২১
কেআই/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa