ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

আইসিসিবি হেরিটেজে ইফতার কিনতে ক্রেতাদের ভিড়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১০ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩, ২০২৪
আইসিসিবি হেরিটেজে ইফতার কিনতে ক্রেতাদের ভিড় আইসিসিবি ইফতার বাজারের একটি স্টল থেকে ইফতারসামগ্রী কিনছেন ক্রেতারা | ছবি: রাজীন চৌধুরী

ঢাকা: রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চলছে ‘পুরান ঢাকা ইফতার বাজার’। ঐতিহ্যবাহী ঢাকাই ইফতারির মুখরোচক ৪২ আইটেমের পসরা সাজানো রয়েছে আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্টে।

রমজানে স্বাস্থ্যসম্মত ও উন্নতমানের পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ইফতারসামগ্রী রোজাদারদের হাতের নাগালে রাখতে আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্টের এই আয়োজন।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অসংখ্য মানুষ ও ভোজনপ্রেমীরা ইফতারির বিভিন্ন আইটেম কিনকে ছুটে আসছেন স্টলটিতে। ক্রেতাদের ভাষ্যমতে, রমজানে রাজধানীজুড়েই প্রচণ্ড যানজট। আর পুরান ঢাকা থেকে ঐতিহ্যবাহী ইফতারির আইটেম কিনে বাসায় ফিরতে ফিরতেই ইফতারির সময় চলে যায়। তাই পুরান ঢাকার ইফতারির বিভিন্ন আইটেমের স্বাদ নিতে আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্টে চলে আসা হয়েছে।

ইফতারির বিভিন্ন আইটেমে রয়েছে শাহী পোলাও, বিরিয়ানি, দম মোরগ পোলাও, চিকেন হরিয়ালি কাবাব, জালি কাবাব, চিকেন রেশমি কাবাব, চিকেন সাসলিক, ভেজিটেবল সাসলিক, হারছাড়া কালোভুনা, খাবসা, চিকেন তান্দুরি, স্পেশাল হান্ডি কাবাব, আস্ত মোরগ মোসল্লাম, শাহী জর্দা, সাসী কাবাব, পাতিলা হালিম, বিফ দম তেহেরি, লেগ রোস্ট ইত্যাদি। মিস্টি জাতীয় খাবারের মধ্যে কমলাভোগ, দিল্লি চমচম, ল্যাংচা, মালাই চপ, গোলাপ জামুন, ক্ষির টোস্ট, রসমালাই, স্পঞ্জ রসগোল্লা, শাহী জিলাপিসহ বাহারি স্বাদের সব মিষ্টি পাওয়া যাচ্ছে আইসিসিবি হেরিটেজে।

বুধবার (৩ এপ্রিল) সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, আইসিসিবিতে ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার ইফতার বাজার প্রাঙ্গণের প্রায় প্রতিটি স্টলের সামনে রয়েছে ক্রেতাদের ভিড়। সবাই ঘুরে দেখছেন ইফতারির নানান আইটেম। ক্রেতারা তাদের পছন্দের সব আইটেম কিনছেনও।

মিরপুর-১০ নম্বর থেকে আইসিসিবি ইফতার বাজারে এসেছেন জিসান ও তার চাচাতো ভাই রবিন। আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্ট স্টল থেকে পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ইফতারসামগ্রী শাহী জর্দা, দম বিরিয়ানি ও খাবসা কিনেছেন তার।

বাংলানিউজকে জিসান বলেন, পুরান ঢাকার ইফতারির আইটেমগুলো অনেক সুস্বাদু। কিন্তু সেখান থেকে ইফতার কিনে বাসায় যাওয়ার সময় পাওয়া যায় না, কারণ সড়কে প্রচণ্ড যানজট।

তিনি বলেন, মিরপুর থেকে ছুটে এসেছি আইসিসিবিতে। কোনো যানজট নেই, তাছাড়া এখানে গাড়ি পার্কিংয়ের সুব্যবস্থা রয়েছে। সব চেয়ে বড় কথা পুরান ঢাকার ইফতারির সব আইটেম এখানে পাচ্ছি, তাও স্বাস্থ্যসম্মত। নিরাপদে এখানকার ইফতারির প্রতিটি আইটেম খেতে পারি।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা নুরুল ইসলাস এসেছেন ইফতারসামগ্রী কিনতে। তিনি বলেন, আমার মেয়ের বায়না সে পুরান ঢাকার বিভিন্ন আইটেম দিয়ে ইফতার করবে। ওর জন্য এখান থেকে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার নিয়ে যাচ্ছি।  

অন্যান্য ক্রেতারা বলেন, আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্টের এমন আয়োজন যদি প্রতি বছর রমজানে করা হয়, তবে ভালোই হবে। আমরা স্বাস্থ্যসম্মত খাবার দিয়ে ইফতার করতে পারব।  

ইফতারের বিভিন্ন আইটেমের পাশাপাশি ‘ফল বাজার’ স্টলে বিভিন্ন ফলের জুস পাওয়া যাচ্ছে। দেশি-বিদেশি এসব ফলের জুসের দামও নাগালের মধ্যেই। আম, লিচু, তরমুজ, কালো জাম, তেঁতুল, আঙুর, আনার, চালতা, আমড়া, ঢেউয়া, স্ট্রবেরি, আপেল, বরইসহ মজাদার স্বাদের জুস রয়েছে ফল বাজার স্টলে। এছাড়াও রয়েছে শাহী লাচ্ছি।

আইসিসিবি হেরিটেজ রেস্টুরেন্টের ইনচার্জ জসীম উদ্দিন সরকার বাংলানিউজকে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ প্রথম দিন থেকে এখন পর্যন্ত ক্রেতাদের ভালো সাড়া পাচ্ছি। পুরান ঢাকার প্রায় বেশির ভাগ ইফতারির আইটেম আমাদের এখানে পাওয়া যাচ্ছে। প্রথম রমজান থেকে দিনে দিনে এই ইফতার বাজারের সাড়া বেড়েছে।

তিনি বলেন, রমজান প্রায় শেষের দিকে। আমাদের এই ইফতার বাজার থাকবে ২৮ রমজান পর্যন্ত। আমরা তিনদিন সময় বৃদ্ধি করেছি।

সপ্তম বারের মতো আয়োজিত এবারের আইসিসিবি পুরান ঢাকা ইফতার বাজার চলবে প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে সবার জন্য উন্মুক্ত।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২৩
এসজেএ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।